রবিবার, ১২ মে, ২০১৯

সুস্থ থাকতে ইফতারে যেসব খাবার রাখবেন

এ বছরের রোজায় বৃষ্টির দেখা নেই। রোদের তেজ প্রতিদিন বাড়ছে। তাই রোজায় সুস্থ থাকতে খাবারের প্রতি যত্নশীল হতে হবে। সারাদিন রোজা রাখার পর নিয়ম না মেনে খাবার খেলে অসুস্থ হয়ে পড়বেন।
ইফতারে সাধারণত অতিরিক্ত তেল জাতীয় ভাজাপোড়া খাবারের দিকে আমাদের ঝোঁক থাকে। তবে এসব খাবার স্বাস্থ্যের জন্য মোটেও ভালো নয়।

প্রতিদিন এসব খাবার ইচ্ছামত খাওয়ার ফলে আপনি পেটের পিড়াসহ বিভিন্ন ধরনের রোগে আক্রান্ত হতে পারেন।
তাই ইফতারে কী খাবেন আর কী খাবেন না এসব বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। নাহলে বিপত্তি ঘটতে পারে।

আসুন জেনে নেই একটি আদর্শ ইফতারের প্লেটে যেসব খাবার রাখবেন।

শরবত

ইফতারের প্রথম অনুষঙ্গ হচ্ছে শরবত। এসময় আপনি বিভিন্ন ধরনের শরবত রাখতে পারেন। লেবু, তকমা, তেঁতুল, টকদই, দুধ, বেল, কাঁচা আম, ইসবগুলের ভুসি ইত্যাদি উপকরণ দিয়ে শরবত তৈরি করা যায়। তবে ডায়াবেটিসের রোগীরা চিনির শরবত খাবেন না।

দুধ-মুড়ি, নরম খিচুড়ি, চিড়া, দই-কলা, শসার রায়তা

সারা দিন রোজা রাখার পর শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। সেক্ষেত্রে খেতে পারেন দুধ-মুড়ি, নরম খিচুড়ি, চিড়া, দই-কলা, শসার রায়তা জাতীয় খাবার। এসব খাবার শরীর ভালো রাখবে।

সালাদ

ইফতারে কাঁচা ছোলা বা সেদ্ধ ছোলার সঙ্গে শসা, টমেটো, আদা কুচি, পুদিনা মিশিয়ে সালাদের মতো করে খেতে পারেন।এতে শরীরে পানিশূন্যতা দূর হবে। সারাদিন রোজা রাখার পর শরীরের ক্লান্তি দূর হবে।

ফলমূল

ইফতারে তাজা ফল শরীরের জন্য খুবই উপকারি। ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়, আঁশের চাহিদা মেটে, মেলে প্রচুর পটাশিয়াম, খনিজ, ভিটামিন।

খেজুর

এছাড়া খেজুরে উচ্চ মাত্রার আয়রন, শর্করা, ক্যালসিয়াম আছে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only