মঙ্গলবার, ৭ মে, ২০১৯

মোদি-মমতা বাকযুদ্ধ চরমে

লোকসভা নির্বাচনের শেষ লগ্নে আরও একবার প্রধানমন্ত্রী মোদি  এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতার বাকযুদ্ধ নতুন মাত্রা পেল। তমলুকের সভা থেকে সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী  বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে যে কোনও কাজ করতেই তৃণমূলকে তোলাবাজি ট্যাক্স দিতে হয়।' কিছুক্ষণের মধ্যেই বিষ্ণুপুর থেকে জবাব দিলেন মমতা। তাঁকে  বলতে শোনা গেল, ‘ আমি তোলাবাজ হলে আপনি কী!  আপনার হাত থেকে শুরু করে পা-  গোটা শরীরে রক্ত লেগে আছে"। এমনিতেই দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী প্রয়াত রাজীব গান্ধীকে নিয়ে করা মোদীর একটি মন্তব্যকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক মহলে সমালোচনা শুরু হয়েছে। রাহুল গান্ধী অবশ্য প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি আক্রমণ না করে গান্ধীগিরির আশ্রয় নিয়েছেন। সংসদে কয়েক মাস আগে অনাস্থা প্রস্তাবের উপর আলোচনা সময় মোদীকে আলিঙ্গন করে রাজনৈতিক মহলকে চমকে দিয়েছিলেন রাহুল। এই বিতর্কের মধ্যেই সেই ছবি আবারও টুইটারে পোস্ট করেছেন কংগ্রেস সভাপতি।

কিন্তু মমতা বুঝিয়ে দিলেন তিনি এরকম কোনও পথে হাঁটবেন না। আক্রমণের জবাব দেবেন আক্রমণ শানিয়ে। তমলুকের সভা থেকে বেশ কয়েকটি বিষয় তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে যে কোনও কাজ করতেই এই তোলাবাজি ট্যাক্স দিতে হয়। তাই জগাই মাধাই সিন্ডিকেট হোক বা তোলাবাজি ট্যাক্স থেকে মুক্তি পেতে বিজেপি-ই একমাত্র বিকল্প।' কিছুক্ষণ বাদেই বিষ্ণুপুরের জনসভা থেকে মমতা বলেন, ‘গতকাল আপনি রাজীব গান্ধীকে দুর্নীতিগ্রস্ত বললেন। আজ আমায় তোলাবাজ বলছেন। আমি তোলাবাজ হলে আপনি কী? হাত থেকে পা- আপনার শরীরের সমস্ত জায়গায় মানুষের রক্ত লেগে রয়েছে। দাঙ্গা ছাড়া আপনাদের কিছুই নেই।'

এই কথা বলে অবশ্যই গুজরাটের দাঙ্গার প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মোদী গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় সে রাজ্যে  হিংসা হয়। কট্টর ডানপন্থী সংগঠনগুলোর দাবি প্রায় দু'হাজার মানুষ গুজরাটের হিংসায় প্রাণ হারিয়েছিলেন। তবে আদালতের নজরদারিতে হওয়া তদন্তে হিংসার সঙ্গে মোদীর কোনও যোগাযোগ পাওয়া যায়নি।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only