শুক্রবার, ১৭ মে, ২০১৯

মালেগাঁও বিস্ফোরণ মামলা: সপ্তাহে একদিন আদালতে হাজিরার নির্দেশ প্রজ্ঞাকে

বিড়ম্বনা আরও বাড়ল লোকসভার বিজেপি প্রার্থী প্রজ্ঞাসিং ঠাকুরের। একদিকে নাথুরাম গডসে বড় দেশভক্ত এই মন্তব্য নিয়ে দলের চাপের মধ্যে থাকতে হচ্ছে। মহাত্মা গান্ধির ঘাতককে দেশভক্ত বলার পর অনিচ্ছা সত্ত্বেও ক্ষমা চাইতে হচ্ছে আর অপরদিকে মালেগাঁও মামলায় তাকে প্রতি সপ্তাহে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হল।
লেফট্যানেন্ট কর্নেল পুরোহিত ও আরও পাঁচ অভিযুক্ত সহ সাধ্বী প্রজ্ঞাকে আদালতে একদিন হাজিরা দিতে হবে মালেগাঁও বিস্ফোরণ মামলায়। যদিও অভিযুক্তরা সকলেই এই মুহূর্তে জামিনে রয়েছে। এনআইএ বিশেষ আদালত শুনানির দিন অভিযুক্তদের আদালতে গরহাজির নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে। আগামী সোমবার পুনরায় শুনানির দিন দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য– মহারাষ্টেÉর মালেগাঁওতে দুটি বিস্ফোরণ হয়। একটি শবেবরাতের সন্ধ্যায় গোরস্থানের কাছে মুসলিমদের সমাবেশে আর দ্বিতীয়টি রমযানের ইফতারির সময়। কট্টরবাদী হিন্দু সংগঠন অভিনব ভারত এই দুটি সন্ত্রাসি কাজে জড়িত ছিল বলে রিপোর্ট জমা দেয় মহারাষ্টÉ পুলিশের বিশেষ তদন্তকারী দল এটিএস। বিস্ফোরণে ব্যবহ*ত আরডিএক্স সেনা গোডাউন থেকে সংগ্রহ হয়েছিল বলে অভিযোগ করা হয়। সন্ত্রাসি নেটওয়ার্কে সেনা অফিসারদের জড়িত থাকার বিষয়টি এবং গেরুয়া সন্ত্রাসিদের নেটওয়ার্ক সামনে আসে মালেগাঁও বিস্ফোরণে তদন্ত করার পর। কর্নেল পুরোহিতের সঙ্গে মেজর রমেশ উপাধ্যায়ের নামও যুক্ত হয়। প্রজ্ঞা সিং নয় বছর জেলে থাকার পর একটি মামলায় বেকসুর মুক্তি পায় ও আরও একটি মামলায় জামিনে থাকা অবস্থায় নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ তাকে ভোপাল কেন্দ্র থেকে লোকসভার প্রার্থী মনোনয়ন করেন। কিন্তু একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করার ফলে নির্বাচন কমিশন তাকে তিনদিন প্রচার বন্ধ রাখার সাজা ঘোষণা করে। তা সত্ত্বেও নাথুরাম নিয়ে মন্তব্য করেন প্রজ্ঞা। এখন প্রতি সপ্তাহে আদালতে হাজিরা দেওয়া অভিযুক্তকে সংসদে পাঠাতে মরিয়া নরেন্দ্র মোদি। প্রজ্ঞাকে সন্ত্রাসি বলে মানতেও চায় না বিজেপি নেতৃত্ব। এখন আদালতে প্রজ্ঞার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন হলেও অভিযুক্ত ও সাজা ঘোষণা হয়নি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only