সোমবার, ৬ মে, ২০১৯

বাংলায় দশটা আসনও পেতে দেব না দিদিকে, হুঁশিয়ারী নরেন্দ্র মোদির


লোকসভা ভোটে আসন দখলের প্রশ্নে দেশের সব রাজ্যকে ছেড়ে কার্যত বাংলাকে পাখির চোখ করেছে বিজেপি। বাংলায় ৪২ আসনের মধ্যে বিজেপির জয়ের লক্ষ্যমাত্রা ২৩ টি আসনে। এই লক্ষ্য পূরণেই বাংলার ভোটের দফা এক– দুই করে যতই এগোচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আক্রমণের সুর ততই চড়ছে। গত কয়েকদিনে এই রাজ্যে একাধিকবার নির্বাচনী প্রচারে এসে প্রধানমন্ত্রী তৃণমূল সুপ্রিমোর বিরুদ্ধে নানা বিষয় নিয়ে তোপ দেগেছেন। সোমবার এই রাজ্যে পঞ্চম দফার ভোটের দিন ফের নির্বাচনী প্রচারে এসে প্রধানমন্ত্রী তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে শুধু আক্রমণই শানাননি– সবকিছু ছাপিয়ে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন– ‘দিদিকে (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) দশটা আসনও পেতে দেব না। আমাদের চমকে ধমকে কোনওলাভ হবে না। চুপচাপ কমলে ছাপ– তৃণমূল সাফ। ’ এই শ্লোগান তুলে প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন– ‘মহাজোট গড়ে দিদি দিল্লি যাওয়ার যে স্বপ্ন দেখছেন তা পূরণ হবে না।’

তৃণমূলকে দশটি আসনও দেওয়া হবে না বলে এদিন প্রধানমন্ত্রী তমলুক এবং ঝাড়গ্রামে বিজেপির এই নির্বাচনী সভায় যে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইতিমেধ্যই রাজ্যের রাজনীতিক মহলে তা নিয়ে নানা জল্পনা শুরু হয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে– ভোট পর্ব চলাকালীন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনী প্রচারে এসে এই ধরণের মন্তব্য যথেষ্টই ইঙ্গিতপূর্ণ। পর্যবেক্ষকদের আরও অভিমত– ভোটপর্ব শেষ হওয়ার আগেই প্রধান প্রতিপেক্ষর আসন পাওয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই ধরণের মন্তব্য কার্যত তৃণমূল কংগ্রেসের ওপর স্নায়ুর চাপ সৃষ্টির একটা কৌশল। পর্যবেক্ষকদের অনেকেরই ধারণা প্রধানমন্ত্রী এই রাজ্যে বারে বারে নির্বাচনী প্রচারে এসে প্রধান প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ঢালাও নেতিবাচক প্রচার করে একটা বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করছেন যেন তৃণমূল কংগ্রেসের পায়ের তলা থেকে মাটি সরে যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only