মঙ্গলবার, ২৮ মে, ২০১৯

ইফতারে তরমুজ খেয়ে অসুস্থ ৫০ রোজাদার


মফিদুল ইসলাম
 ডোমকলে­ গ্রীষ্মকালে চিকিৎসকেরা উপদেশ দেন বেশি পরিমাণে জল ও রসালো ফল খেতে। রসালো ফলের মধ্যে তরমুজ অন্যতম। ছোট বা মাঝারি সাইজের তরমুজকে খদ্দেরদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে ইথিনিল জাতীয় রাসায়নিক কাঁচা বা অপুষ্ট– অপরিণত তরমুজে ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে প্রয়োগ করে তরমুজের ভেতরের অংশ লাল করা হচ্ছে। উপর সবুজ আর ভেতর লাল তরমুজ দেদার কিনছেন আমজনতা। রোজার মাসে এই তরমুজের চাহিদাও বেড়েছে।
রবিবার সন্ধ্যায় মুর্শিদাবাদের রানীনগর থানার গোধনপাড়া মসজিদে ইফতার করার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন প্রায় পঞ্চাশজন রোজাদার ব্যক্তি। স্থানীয় বাসিন্দা আ·ুস সালাম জানান– ইফতারে অন্যান্য ফলের সঙ্গে তরমুজ দেওয়া হয়েছিল। অনুমান করা হচ্ছে তরমুজে দেওয়া কেমিক্যাল থেকেই বিষক্রিয়া হয়েছে। ইফতার করার কিছুক্ষণ পর থেকেই  বমি– পেটব্যথা– পাতলা পায়খানা– এককথায় ডায়েরিয়ার উপসর্গ দেখা যায়। প্রথমে তাদের গোধনপাড়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। পাঁচ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ডোমকল মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।
ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডা. কামাল বাশার সরকার বলেন– প্রায় পঁয়ত্রিশ জন গোধনপাড়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য আসেন। রোগীদের উপসর্গ দেখে অনুমান খাদ্যে বিষক্রিয়ার ফলেই এমন হয়েছে। কয়েকজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেও বেশ কয়েকজন এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে রঙ বা কেমিক্যাল মেশানো খাবার গ্রহণ না করার জন্যই পরামর্শ দেন তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only