বুধবার, ২৯ মে, ২০১৯

অ্যান্টিবায়োটিক ছাড়ুন, দেহে জন্মাতে পারে সুপারবাগ, উদ্বিগ্ন ডাক্তাররাও


 অ্যান্টিবায়োটিক ছাড়ুন, দেহে জন্মাতে পারে সুপারবাগ, উদ্বিগ্ন ডাক্তাররাও













পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক:


শরীরের তাপমাত্রা সামান্য উঠলেই, কিংবা পেটে একটু মোচড় দিলেই আমরা ছুটি অ্যান্টিবায়োটিক আনতে। সাধারণ অসুখবিসুখ তো বটেই, অনেক  গুরুতর অসুখেও আমাদের প্রথম উপায় এই ওষুধটি।
কয়েকটি অ্যান্টিবায়োটিকে অসুখ একটু সারলেই ব্যাস, বাকি অ্যান্টিবোয়োটিকগুলো পড়েই থাকে। ঘরে ঘরে এই সাধারণ ছবির বিষয়টি ভাবাচ্ছে চিকিৎসক মহলকে। তাতে উৎসাহ জোগাচ্ছে বিশ্বের কিছু গবেষণাও। যখন তখন মুঠোমুঠো অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারে রাশ না টানলে অপেক্ষা করছে অপূরণীয় ক্ষতি।
কেবল ভারতে নয়, গোটা বিশ্বেই যখন ইচ্ছে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারের প্রবণতা বাড়ছে। আর তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে কোর্স না শেষ করে মাঝপথেই ওষুধ বাদ দেওয়ার অভ্যাস।
একদিকে, মুড়িমুড়কির মতো অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়া, অন্যদিকে ওষুধের নির্দিষ্ট কোর্স শেষ না করা- সবই ধীরে ধীরে ডেকে আনছে মরণ ব্যাধি-  এমনটিই মনে করছেন চিকিৎসকরা। ব্যস্ততার জীবনে এই অসুখ ডেকে আনার প্রবণতা নিয়ে চিন্তায় তাঁরা।
শরীরে অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী শক্তি নিয়েই হানা দিচ্ছে যেসব ব্যাকটিরিয়া, 'ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ প্রিভেনশন অ্যান্ড কন্ট্রোল' (ইসিডিসি)-এর গবেষকরা তাদের নাম দিয়েছেন 'সুপারবাগ'।  ইউরোপ মহাদেশে সুপারবাগের প্রকোপে প্রতিবছর মারা যাচ্ছে ৩৩ হাজার মানুষ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only