সোমবার, ২০ মে, ২০১৯

কিশোরী পাচার, গ্রেফতার মন্দিরের পুজারি

শীতলকুচি, ২০ মে, নিজস্ব প্রতিনিধি: ফালাকাটায় পুরোহিতের বিরুদ্ধে নাবালিকা ধর্ষণের ঘটনার পর এবার শীতলকুচিতে এক কিশোরীকে পাচারের অভিযোগ উঠল দুই পুজারির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার জেলার শীতলকুচি ব্লকের মুদিখানা এলাকায়। এই ঘটনাটিকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে টিউশন পড়তে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয় নবম শ্রেণির পড়ুয়া ওই কিশোরী। গোসাইরহাট হাইস্কুলের ছাত্রী ছিল সে। কিন্তু সন্ধ্যা পেরিয়ে গেলেও বাড়িতে ফিরে আসেনি ওই কিশোরী। মেয়ে বাড়িতে ফিরে না আসায় আত্মীয়দের বাড়িতে প্রাথমিকভাবে খোঁজ খবর নেওয়া শুরু করে পরিবারের লোকেরা। কিন্তু সেদিন কোনো খোঁজ মেলেনি। ঘটনার পরের দিন কিশোরীর পরিবার জানতে পারে, শীতলকুচি মুদিখানা সংলগ্ন গোবিন্দ মন্দিরে বৃহস্পতিবার তাদের মেয়েকে শেষবার দেখা গিয়েছে। ওই খবর পেয়ে স্থানীয়রা ওই মন্দিরে গিয়ে দুই পুজারিকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন। কিন্তু ওই দুই পুজারির কথায় অসংলগ্নতা দেখে শনিবার শীতলকুচি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে কিশোরীর পরিবার। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে এক মহিলা পুজারিকে শনিবার গ্রেফতার করেছে শীতলকুচি থানার পুলিশ। আজ অভিযুক্ত মহিলা পুজারিকে মাথাভাঙ্গা এসিজেএম আদালতে তোলা হলে বিচারক তার পাঁচ দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দেন। মন্দিরের অপর পুজারি পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। অন্যদিকে মেয়েটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে শীতলকুচি থানার পুলিশ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only