সোমবার, ২৭ মে, ২০১৯

রাজমিস্ত্রীর কাজ করে উচ্চমাধ্যমিকে সাফল্য নাসিরের

শুভায়ুর রহমান, নাকাশিপাড়াঃ ঘর আর মেঝে আলাদা কিছু নয়। ফুট তিনেক উঁচু মাটির মেঝেয় একটি টিনের ফ্রেম বসানো।  টালির ছাউনি দেওয়া এক চিলতে মাথার গোঁজার ঠাঁই। ইয়ারুন্নেসা বিবি হাত দিয়ে ইশারা করে দেখিয়ে বললেন, এটাই আমার ঘর। দুই ছেলে মেয়ে ও স্বামীকে নিয়ে এখানেই কষ্টের সংসার। মায়ের দিকে একনাগাড়ে তাকিয়ে আছেন নাসির সেখ। চোখেমুখে কষ্টের ছাপ। আনন্দের মাঝে কোথাও যেন চাপা আর্তনাদ, ' আমি বাঁচতে চাই' হয়ত এমনি  ভাবনা চলছে নাসিরের মনের আনাচে-কানাচেতে। বাবা লাল্টু সেখের দীর্ঘশ্বাসই বলে দিচ্ছিল ওরা ভাল নেই৷ উচ্চ মাধ্যমিকে পাশ করার পর এত খরচ আসবে কোত্থেকে?  মা ইয়ারুন্নেসা অভয় দিয়ে জানান, যত কষ্টই হোক দুই ছেলে মেয়েকে পড়াব।' সোমবার প্রকাশিত হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের ফল। ফলাফলের পর নদিয়ার নাকাশিপাড়ার কিনুপোতা গ্রামের নাসির সেখের বাড়িতে একদিকে যেমন আনন্দ অন্যদিকে আকাশ ছোঁয়া চিন্তা। সম্বৎসর পড়ার ফাঁকে ছুটির দিনে রাজমিস্ত্রিকাজে জোগালে করতেন। মাথায় উঠত ইঁট। ছেলের কষ্ট হচ্ছে জেনেও বাবা লাল্টু সেখ নিষেধ করতে পারেননি। লাল্টু সেখ ও ইয়ারুন্নেসার দুই ছেলে মেয়ে নাসির সেখ ও সেলিনা খাতুন। তারা চান দুজনেই উচ্চ শিক্ষা অর্জন করুক। নাসির এ বছর ৪৪০ নম্বর পেয়ে কৃতিত্বের সঙ্গে তেঁতুলবেড়িয়া হাইস্কুল থেকে উত্তীর্ণ হয়েছেন। তার বিষয়ভিত্তিক নম্বর বাংলায় ৮২, ইংরেজিতে ৬৭, ভূগোলে ৯১, ইতিহাসে ৮৮, দর্শনে ৯৪ ও এডুকেশনে ৮৫।
নাসিরের পরিবার সূত্রে জানাগেছে, নাসির সারা বছর ছুটির দিনে রাজমিস্ত্রির জোগালে করেন। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার আগেও দু,মাস জোগালের কাজ করেছেন। এখন ছুটিতেও প্রতিদিন ইঁট তোলেন মাথায়। গ্রামের মধ্যে ছোট্ট একটি মুদির দোকান আছে বাবার, বোন দশম শ্রেণিতে পড়ে। আমরা খুব গরীব। বাড়িঘর নেই তাই জোগালের কাজ করে বাবাকে সঙ্গে দিই বলে জানান নাসির সেখ। নাসিরের মা ইয়ারুন্নেসা বিবি জানান, মুদির দোকানে ঠিক মতো মাল থাকে না। দোকান চলেই না৷ কোন জমিও নেই।ভিটে টুকুই সম্বল। সেই জন্য ছেলে আমার জোগালের কাজ করে। ছেলে খুব কষ্ট করে। ও যেদিন মাষ্টার হবে, সেদিন আশাপূরণ হবে, বলতে বলতে মায়ের দু,চোখ চিকচিক করে ওঠে। মায়ের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়ে আকাশের দিকে তাকায় নাসির সেখ। কষ্টগুলো মনে করে বলে ওঠেন, স্যার ইঁট তোলা, মশলা জমানো পারিনা। তবুও করতে হয়। মায়ের মতো নাসিরেরও গলা বুজে আসে। বিড়বিড় করে শেষে একটা কথায় জানান নাসির, আমাকে আরও পারতে হবে'।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only