সোমবার, ২৭ মে, ২০১৯

মোবাইলকে কেন্দ্র করে বোমাবাজি-ইঁট বৃষ্টি, আহত পুলিশ কর্মী

দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট, ২৭মেঃ  গোষ্ঠী সংঘর্ষের জেরে ব‍্যাপক বোমাবাজিতে উত্তপ্ত বীরভূমের  রামপুরহাট মহকুমার মাড়গ্রাম থানার মাড়গ্রামে। অশান্তির উৎস এক মোবাইল নিয়ে দুজনের বচসা। তার জেরে দুই পক্ষের মধ্যে গোষ্ঠী সংঘর্ষ। ঘটনার জেরে এক এস আই, এ এস আই ও দুই কনস্টেবল সহ মোট চার পুলিশ কর্মী আহত। তাদের মধ্যে তিন জন স্থানীয় বসোয়া প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ও বাকি একজনকে রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। ঘটনা স্থলে রামপুরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সৌম‍্যজিত বড়ুয়া বিশাল পুলিশ নিয়ে হাজির হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।
এলাকা সূত্রে জানা গেছে, রবিবার মাড়গ্রামের বাজার পাড়ায়  স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির সদস‍্য হারাই সেখের ছেলে বুলেট সেখ ও দর্জিপাড়ার গাব্বার সেখের ছেলে রাহুল সেখ ওরফে রাজ সেখের বচসা হয় মোবাইল দেখাকে কেন্দ্র করে। অভিযোগ, বুলেট রাহুলকে ঠাট্টা করে। এনিয়ে দুজনের মধ্যে হাতাহাতি হলেও রবিবার রাতে পুলিশি হস্তক্ষেপে তা মিটে যায়। সোমবার সকালে দর্জিপাড়ার কয়েকজন কাজে যাওয়ার সময় বাজার পাড়ার ছেলেরা মারধোর করে। তারপর দুই পক্ষ পরষ্পরের দিকে মুড়ি মুড়কির বোমা ছোড়ে।  ঘটনা স্থলে পুলিশ পৌঁছালে তাদের লক্ষ্য করে ইঁট ছোঁড়া হয়। ঘটনার জেরে চার পুলিশ কর্মী আহত হন। পরে মহকুমা পুলিশ আধিকারিক বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে ঘটনা স্থলে পৌঁছালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। বোমায় আহত টোটা সেখ নামে এক যুবক জানান, ঘুম থেকে উঠে বাইরে বেরিয়ে আসার পর কিছু বুঝে ওঠার আগেই বোমার স্প্লিন্টারের আঘাত লাগে পায়ে। দর্জি পাড়ার পলি বিবি জানান, ছোট দের মধ্যে সামান্য ঝামেলাকে কেন্দ্র করে বড়োরা আমাদের ছেলেরা যখন কাজ করতে যাচ্ছিল, তাদের মারধোর করে। বাজার পাড়ার জুলি বিবি জানান, ছোট দের ঝামেলা মিটে গেছিল। তারপর বড়রা ঝামেলা পাকালো। রামপূরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সৌম‍্যজিত বড়ুয়া বলেন, বাচ্চাদের মধ্যে একটা ঝামেলা হয়েছিল। মিটে গেছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only