সোমবার, ২৭ মে, ২০১৯

অগস্টে আসতে চলেছে জিএসটির বড় সংস্কার

অগস্টের মধ্যে আসতে চলেছে প্রস্তাবিত নয়া একমাত্র কর্তৃপক্ষ। অর্থ মন্ত্রক রপ্তানিকারকদের জন্য কর ফেরৎ প্রক্রিয়া সরল করার পাশাপাশি গোটা ব্যবস্থায় বর্তমানের তুলনায় অনেক বেশি গতি আনতে এই পরিকল্পনা করেছে। এর ফলে করদাতাদের অহেতুক হয়রানি এবং বিলম্বের মুখে পড়তে হবে না। কেন্দ্রীয় রাজস্ব দপ্তর প্রস্তাবিত যে নয়া ব্যবস্থা তৈরি করেছে, তাতে দাবি অনুমোদন হয়ে যাওয়ার পরই করদাতা যে আধিকারিকের এক্তিয়ারভুক্ত, তাঁর থেকে পূর্ণ অর্থ ফেরত পাবেন। আর কেন্দ্র ও রাজ্যগুলি একে অপরের প্রদেয় অর্থ থেকে তা বাদ দেবে। বর্তমানে কোনও করদাতা ফেরতের দাবি জমা দেওয়ার পরে ওই আধিকারিক(ধরা যাক কেন্দ্রীয় কর আধিকারিক) ৫০ শতাংশ দাবি অনুমোদন করেন। বাকি ৫০ শতাংশ পুনরায় খতিয়ে দেখার পর সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারের কর আধিকারিক অনুমোদন করেন। এর ফলে আবেদন জমা দেওয়ার পর ফেরত পেতে বহু বিলম্ব হয়, যার জেরে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে ব্যবসায়ীদের। তাঁরা পড়ছেন তীব্র নগদ সঙ্কটেও। প্রস্তাবিত ‘একমাত্র কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা’য় বলা হয়েছে, কেন্দ্র বা রাজ্য স্তরের কোনও কর আধিকারিকের কাছে ফেরত দাবি জমা করার পর ওই অফিসার তা খুঁটিয়ে পরীক্ষা করে সিজিএসটি ও এসজিএসটি, দুয়েরই অংশ সম্পূর্ণ কর ফেরত হিসাবে অনুমোদন করবেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only