বুধবার, ২৯ মে, ২০১৯

অভাবের মধ‍্যেও নজর কাড়া রেজাল্ট দুই যমজ ভাইবোনের


দেবশ্রী মজুমদার, বীরভূম, ২৯মে:- অভাবের মধ‍্যেও নজর কাড়া রেজাল্ট দুই যমজ ভাইবোনের। বীরভূমের মুরারইয়ের রাজগ্রামের  বাসিন্দা এই দুই কৃতী সন্তানের। তাদের নাম তৌশিফ আহমেদ ও  শারমিন মমতা। তাদের বাবা একজন রেডিও মিস্ত্রি। মা আশা কর্মী। তাদের  ঘর ছোট। কিন্তু আকাশ অনেক বড়ো।   
এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৪৬১ নম্বর পায় তৌশিফ। শতাংশের বিচারে তাঁর প্রাপ্ত  নম্বর (৯২.২%)। রাজগ্রামের বাসিন্দা  হলেও, আল আমিন মিশনে পড়ত তৌশিক আহমেদ।  রাজগ্রাম মহামায়া হাই স্কুল থেকে ৫৮৫ নম্বর পেয়ে মাধ‍্যমিক পাশ করে তৌশিক। যা শতাংশের হারে ৮৫ শতাংশ। তার পর হাওড়া জেলার খলতপুর অল আমীন মিশন এ পড়ালেখা শুরু করে তৌসিক আহমেদ। বাবা আব্দুস শুকুর একজন সামান্য শেখ রেডিও মেকানিক। মা ফেরদৌসী বেগম রাজগ্রামের আশা কর্মী। দুই ছেলে এক মেয়ে! মেয়ে শারমিন মমতা রাজগ্রাম মহামায়া হাই স্কুলের ছাত্রী। সে ও উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে এবার। তার প্ৰাপ্ত নম্বর ৪৩৪। মহামায়া হাই স্কুল থেকে তৃতীয় হয় সে। তৌশিক আহাম্মেদ ও শারমিন মমতা দুজনে যমজ ভাই। শারমিন মমতা ভুগোলে অনার্স নিয়ে পাশ করে শিক্ষিকা হতে চায়। তৌশিক আহমেদ  ভবিষ্যতে ডাক্তার হয়ে এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে চায়।  বাবা আব্দুস শুকুর ও মা ফেরদৌসী বেগম জানান, সবই আল্লাহর কৃপা। তবে আল আমিন মিশন ও শিক্ষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only