শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯

নামাজ পড়া বন্ধ করে বৃদ্ধাকে আত্মহত্যার হাত থেকে বাঁচালেন টোটোচালক

পরণে নাইটি, মাথার চুল উসকো খুশকো৷ মেয়েকে খুব কষ্ট করে বড় করেছিলেন৷ এখন বয়সের ভারে ন্যুব্জ তিনি৷ ভেবেছিলেন এই সময়ে পাশে পাবেন মেয়েকে৷ কিন্তু ভাবনার সঙ্গে মিলল না বাস্তব৷ পরিবর্তে মেয়ের হাতে অত্যাচারিত মা৷ যন্ত্রণার জীবন থেকে মুক্তি পেতে ভেবেছিলেন আত্মহত্যা করবেন৷ এমনই অবস্থায় সেই বৃদ্ধা হাজির সিউড়ির মাণিক মারোয়াড়ির মোড়ে। সেখানেই গত দুবছর ধরে কাজল টোটো চালান। কাজল সেই মুহুর্তে টোটো চালিয়ে নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন মসজিদের দিকে। সেই মোড়ে কাজলকে পেয়ে বৃদ্ধা বলেন, ‘‘বাবা, বিষের দোকান কোথায় নিয়ে যাবে। দানা বিষের দোকান।’’ মারোয়াড়ি মোড়ের কাছাকাছি রাসায়নিক বিষের দোকান ছিল। কাজলের কথায়, ‘‘আমি কাকিমাকে জিজ্ঞাসা করি, দানা বিষ নিয়ে কী করবেন? বৃদ্ধা জানান, সংসারে অশান্তি। মেয়ে আর বাড়ির পরিচারিকা আমার উপর অত্যাচার করে। আর সহ্য হয় না। আমি বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করব। বৃদ্ধাকে তিনি বলেন, কাকিমা আপনাকে মরতে হবে না। আমার বাড়ি চলুন।’’ এই বলেই সেই টোটোচালক নামাজ ছেড়ে সিউড়ি থানায় ওই বৃদ্ধাকে নিয়ে যান৷ আদালত চত্বরে এক বিচারকের সঙ্গে দেখা হয় কাজলের। তিনিই সব শুনে ওই বৃদ্ধাকে আইনি পরিষেবা কেন্দ্রে নিয়ে যান। কেন্দ্রের সচিব বর্ণালী দাশগুপ্ত বলেন, ‘‘আমি বৃদ্ধার কাছে সবিস্তারে গোটা ঘটনাটি শুনি। তার অসহায়তার কথা শুনে তাঁকে মহিলা থানায় পাঠাই।''
পুলিশের পক্ষ থেকে বৃদ্ধার মেয়েকে সাবধান করা হয়৷ বৃদ্ধার উপর ফের নির্যাতন হলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন পুলিশ আধিকারিক৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only