বৃহস্পতিবার, ৯ মে, ২০১৯

তীব্র দাবদাহ, নাজেহাল অবস্থা বীরভূম জেলায়

কৌশিক সালুই বীরভূম  মে:- বৃষ্টির দেখা নেই। তীব্র দাবদাহে নাজেহাল অবস্থা বীরভূম বাসীর। এই জেলা তথা দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলির বায়ুমণ্ডল থেকে জলীয় বাষ্প উধাও হয়ে গিয়েছে ফণী  ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে। ফলে তীব্র দাবদাহের সৃষ্টি হয়েছে। এক্ষুনি নিস্তারও নেই এই দাবদাহ থেকে। আগামী সপ্তাহ এই তাপ প্রবাহ চলবে জেলা জুড়ে। তার আগে হাওয়া অফিস দিতে পারেনি কোনোরকম বৃষ্টির পূর্বাভাস। চিকিৎসকরা দাবদাহ থেকে বাঁচতে নানা পরামর্শ দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার দিন বীরভূম জেলার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪১ ডিগ্রি এবং সর্বনিম্ন ছিল ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে বিগত এক সপ্তাহে জেলায় দেখা গিয়েছে ১০ ডিগ্রির বেশি তাপমাত্রা ওঠানামা করেছে। যার কারনে আরো হাঁসফাঁস অবস্থা জেলাবাসীর। শ্রীনিকেতন আবহাওয়া দপ্তরের খবর অনুযায়ী গত ৪ই মে জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  ২৯ শে এপ্রিল এই জেলায় ছিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০.৭ ডিগ্রি।  ফণীর প্রভাবে কিছুটা দিন তিনেকের জন্য স্বস্তি মিললেও চলে যাওয়ার সাথে সাথে পুনরায় আবার দাবদাহে শুরু হয় জেলা জুড়ে। তারপর বীরভূম সহ দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০ এর গণ্ডি ছাড়িয়েছে ৪২ থেকে ৪৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস পৌঁছে গিয়েছে।
বাতাসে জলীয়বাষ্প না থাকায় শরীরের ঘাম শুকিয়ে যাচ্ছে। যারা রাস্তাঘাটে বের হচ্ছেন, তারা চোখে, মুখে, নাকে কাপড় দেখে কোন রকম ভাবে নিজেকে সুরক্ষিত রেখে পথে নামছেন। ফলত একটু বেলা বাড়লে রাস্তাঘাট শুনশান হয়ে পড়ছে। কিন্তু চেয়ে থাকলেও এই মুহূর্তে কোনো রকম নিস্তার নেই। আগামী দিন আরো তাপমাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আবহবিদদের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী কয়েক দিন কোনরকম বৃষ্টিপাত অথবা কালবৈশাখীর সম্ভাবনা নেই। কারণ হিসাবে তারা জানাচ্ছেন, যে সকল অঞ্চল দিয়ে বড় সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায় অথবা প্রভাব পড়ে সেই সকল এলাকার যাবতীয় জলীয় বাষ্প শুষে নেয় ওই সামুদ্রিক নিম্নচাপ। যার কারণেই বাড়ছে তাপমাত্রা, বইছে তাপপ্রবাহ, বইছে লু। সিউড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে সুপার শোভন দে বলেন, তাপ প্রবাহ এবং লু থেকে বাঁচতে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর এর পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের সচেতনামূলক বার্তা দেওয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষকে খুব প্রয়োজন ছাড়া রোদে বাইরে বেরোনোর প্রয়োজন নেই। ছাতা, রোদচশমা, সুতির ঢিলেঢালা পোশাক পড়তে হবে। এই গরমে সুস্থ থাকতে খাবার দেওয়ার ব্যাপারে বিশেষ নজর রাখতে হবে। বেশি পরিমাণে শাকসবজি সহ সহজপাচ্য খাবার খেতে হবে। প্রচুর পরিমাণে জল খেতে হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only