বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯

সমস্ত ওয়াকফ সম্পত্তিকে ডিজিটাইজড করা হবে: মুখতার আব্বাস নাকভি

দেশের সমস্ত ওয়াকফ সম্পত্তির তথ্য ডিজিটাইজড্ করে এক ছাতার তলায় নিয়ে আসতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নাকভি। সম্প্রতি তিনি ঘোষণা করেছেন, অল ইন্ডিয়া ওয়াকফ বোর্ডের অধীন ওয়াকফ সম্পত্তিগুলি জিও-ট্যাগ করা হবে। পাশাপাশি সেই সম্পত্তিতে স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল, কমিউনিটি সেন্টার তৈরি করা হবে বলেও তিনি জানান।
উল্লেখ্য– সেন্ট্রাল ওয়াকফ কাউন্সিলের বৈঠকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান,‘সমস্ত ওয়াকফ সম্পত্তিকে জিও-ট্যাগ ও ডিজিটাইজড্ করা হবে। এবং সেগুলিতে  স্কুল– কলেজ– হাসপাতাল– কমিউনিটি সেন্টার– কমন সেন্টার এবং ছাত্রাবাস তৈরি করা হবে।’ সেগুলি নির্মাণের জন্য  ‘প্রধানমন্ত্রী জন বিকাশ কার্যক্রম’ থেকে টাকা বরাদ্দ করা হবে বলেও জানিয়েছেন মুখতার আব্বাস নাকভি।
প্রসঙ্গত, জিও-ট্যাগ বলতে ছবি, ভিডিও বা অন্যান্য তথ্য ভৌগলিক সনাক্তকরণের একটি প্রক্রিয়াকে বোঝায়। এখানে ওয়াকফ সম্পত্তিগুলির অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশগত অবস্থান, স্থানগুলির নাম সহ সমস্ত পরিচিতি তুলে ধরা হবে ফলে সকলেই সেই সম্পত্তিগুলির সঠিক তথ্য সম্পর্কে অবগত হতে পারবে। যদি এমনটা করা হয়ে তবে আখেরে মুসলিম সম্প্রদায়েরই লাভ বলে মনে করছেন অনেকেই। উল্লেখ্য, দেশে বর্তমানে প্রায় ৫.৭৭ লাখ নিবন্ধীকৃত ওয়াকফ সম্পত্তি আছে।
মন্ত্রী জানান, সেই সব সেন্টারগুলি মুসলিম মেয়েদের ইউপিএসসি, ব্যাঙ্ক বা সরকারি চাকরির পরীক্ষার ফ্রি কোচিং প্রদান করবে। নাকভি জানান, ‘আমরা কতকগুলি প্রতিষ্টানের সাথে কথা বলেছি। এবং এই বছরেই তাদের সাথে কথা বলে সেই প্রক্রিয়া শুরু করা হবে। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকার আগামী পাঁচ বছরে পাঁচ কোটি সংখ্যালঘু ছাত্র-ছাত্রীকে স্কলারশিপ দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছে। সঙ্গে মাদ্রাসাগুলিকে শিক্ষার মূলধারায় নিয়ে যেতেও পরিকল্পনা করেছে। প্রধানমন্ত্রী মাদ্রাসাগুলিকে আধুনিকীকরণ করতে চান বলেও খবর। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘একহাতে কুরআন অন্যহাতে কম্পিউটার।’ এমন ঘোষণা মুসলিমদের বিশ্বাস অর্জন করতে ভারতীয় জনতা পার্টির প্রচেষ্টার সামিল বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only