শনিবার, ১ জুন, ২০১৯

নামাযের জন্য নিজেদের দোকান ছেড়ে দিলেন হিন্দুরা

রমযানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল ছবি তুলে ধরল ভোপাল। ঈদের আগে গতকাল ছিল শেষ জুম্মা। যাকে বলা হয় ‘জুমাতুল বিদা’। রোযার মাসের শেষ শুক্রবারে স্থানীয় মুসলিমদের জুম্মার নামাযের জন্য জায়গা করে দিতে নিজেদের দোকান ছেড়ে দিলেন হিন্দু ব্যবসায়ীরা। রমযান মাসে ঈদের আগে শেষ শুক্রবারের নামাযকে বলা হয় ‘আল বিদা জুম্মা’। এই নামাজ পড়তে শুক্রবার দুপুরে ভোপালের চক বাজার এলাকার জামা মসজিদে জড়ো হন মুসলিমরা। মসজিদের ভেতরে ও বাইরে মুসুল্লিতে পুরো ভরে যায়। তারপরও অনেকেই নামাযের জন্য দাঁড়িয়ে ছিলেন। পরিস্থিতি দেখে সেখানকার হিন্দু ব্যবসায়ীরা নিজেদের দোকান ও দোকানের সামনের জায়গা তাঁদের নামায পড়ার জন্য ছেড়ে দেন। শুধু তাই নয়– নামায পড়তে যাতে কারও কোনও অসুবিধা না হয়– সেজন্য পর্যাপ্ত মাদুরেরও ব্যবস্থা করে দেন তাঁরা। স্বাভাবিকভাবেই এলাকার হিন্দু ভাইদের এই উদারতায় অভিভূত মুসলিমরা। ভোপালের চক্ বাজারের এই সম্প্রীতি অনেক পথ পাড়ি দেওয়ার ফল। অনেক পথ পেরিয়ে তবেই ভোপালের চক বাজার শান্তিতে থাকতে শিখেছে বলে জানিয়েছেন বিকাশ আগরওয়াল নামে এক স্থানীয় ব্যবসায়ী। তিনি জানিয়েছেন– বিভেদ ভুলে দুই সম্প্রদায়ের মানুষ একে অন্যের পার্বনে অংশ নেন। দীর্ঘদিন ধরেই এই রীতি এখানে চলে আসছে। হিংসার এখানে কোনও জায়গা নেই। কেন্দ্রে যে সরকারই আসুক না কেন– অন্য যেখানে যাই ঘটে যাক না কেন– চকই বাজারের সম্প্রীতিতে তার কোনও প্রভাব পড়ে না। কোথাও সামান্য কিছু হলে আমরাই সবার আগে ঝাঁপিয়ে পড়ে বিষয়টি মিটিয়ে দিই। কোনও অশান্তি দানা বাঁধতে দিই না।  

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only