মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০১৯

নিজেদের ঘাড়ে কেন বেশি কর চাপাতে চান মার্কিন ধনকুবেররা ?


নিজেদের ঘাড়ে এখন বেশি কর চাপাতে চাইছে মার্কিন ধনকুবেরদের একটি নির্দলীয় জোট। জানা গিয়েছে, আমেরিকার আসন্ন নির্বাচনে না কি প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের প্রতি অতি-ধনীদের ওপর আরোপিত করের পরিমাণ আরও বৃদ্ধি করার আহ্বান জানিয়েছেন। সেই সম্পর্কে তারা একটি উন্মুক্তপত্র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে। 

ওই পত্রে তারা দাবি করেছেন, আমাদের বা অতি-ধনীদের ওপর আরো বেশি করারোপ করার জন্য নীতিগত এবং অর্থনৈতিক দায় রয়েছে আমেরিকা। এই খোলা চিঠিতে ধনকুবের জর্জ সোরস,ফেসবুকের সহ প্রতিষ্ঠাতা ক্রিজ হিউজ, মলি মঙ্গারের মত ১৭জন ধনী স্বাক্ষর করেছেন।

তারা দাবি করেছেন, এটি একটি নির্দলীয় এবং নিরপেক্ষ জোট। তাদের বিশ্বাস, অতি-ধনীদের সম্পদের ওপর আরোপিত কর থেকে সরকার জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকানো, অর্থনৈতিক অবস্থা, স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং সকল নাগরিকের জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি করতে পারবে। এর ফলে আমেরিকার গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ আরো শক্তিশালী হবে। একটি প্রাসঙ্গিক সম্পদ কর রাষ্ট্রের স্বার্থ সুরক্ষায় বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

এই ১৭ জন ধনীদের মধ্যে আরও রয়েছে ওয়াল্ট ডিজনি, হায়াত হোটেন চেনের মালিকদের সন্তানরা।এদের সকলেই বিপুল সম্পত্তির মালিক। এদের মধ্যে অনেকেই জনকল্যাণমূলক ও প্রগতিশীল কাজের সঙ্গে জড়িত। এই খোলা চিঠিতে ওয়ারেন বাফেটের একটি উক্তি উল্লেখ করা হয়েছে।

 সেখানে বাফেট অভিযোগ করেছেন, তার ওপর সরকারের ধার্য করা করের পরিমাণ না তাঁর সেক্রেটারির পারিশ্রমিকের চেয়েও কম। তাঁর মতে যাদের অতিরিক্ত সম্পদ আছে তাদের কাছ থেকে অধিক কর নিয়ে সরকার দেশের ভবিষ্যৎ নির্মাণে সঠিক বিনিয়োগ করতে পারবে। যেমন নবায়নযুক্ত ও দূষণমুক্ত জ্বালানি ব্যবস্থার উন্নয়ন, শিশুকল্যান প্রণয়ন, শিক্ষার্থীদের ঋণের বোঝা লাঘব, অবকাঠামো উন্নয়ন, স্বল্প-আয়ের পরিবারগুলি কর মুকুব ইত্যাদি। এটা সামাজি বৈষম্য দূর করে একটি সুস্থ মার্কিন সমাজ গঠনে এক ঐতিহাসিক সমাজ গঠনে সাহায্য করবে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only