রবিবার, ২ জুন, ২০১৯

রোজা ভেঙে রক্তদান করে আবার মানবিক যুবক

শুভায়ুর রহমানঃ গত ২৯ মে হাওড়ার মাকরদহের বছর একান্ন বয়সী প্রদীপ কুমার হালকে রক্ত দিয়ে সম্প্রীতির অটুট রাখার কথা বলেছিলেন  হাওড়ারই যুবক সৈয়দ জিসান হোসায়েন। ঠিক তার কয়েক দিন পর শনিবার কৃষ্ণনগরের এক নাবালিকাকে রক্ত দিয়ে মানবিকতার পরিচয় দিলেন কালীগঞ্জের যুবক ওসমান গণি সেখ। জানা গেছে, কৃষ্ণনগরের পাণিনালার থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত ক্লাস ওয়ানের এক খুদেকে প্রতিমাসে রক্ত দিতে হয়৷ শনিবারও সেই মতো রক্তের প্রয়োজন হয়। ঐ শিশুর পরিবার চিন্তায় পড়েন। কিভাবে রক্তদাতা পাওয়া যাবে। তার পরিবার প্রতিবেশী এক ব্যক্তির সাহায্যে কালীগঞ্জ ব্লকের ছোটকুলবেড়িয়া গ্রামের ওসমান গণি সেখের সন্ধান পান। ওসমান গণিকে রক্তাদান করার কথা বললে তৎক্ষনাৎ তিনি রোজা ভেঙে শক্তিনগর হাসপাতালে হাজির হন। ওসমান গণি সেখের কথায়, আমরা একটি রক্ত সন্ধানের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ চালাই। প্রতিদিন বহু আবেদন আসে। আমাকে এ পজিটিভ রক্ত দেওয়ার জন্য বলা হয়। রোজার চেয়ে মেয়েটির প্রাণ বাঁচানো আগে জরুরি মনে করে রোজা ভেঙে শক্তিনগর হাসাপাতালে যাই। ভাল লাগছে খুবই।' শিশুকন্যার মা তাপসী দাস জানান,  রোজা ভেঙে মেয়েকে রক্ত দিয়েছেন। ভগবান সমতুল্য কাজ করেছেন। মেয়ের প্রতিমাসে রক্ত লাগে। প্রতিবেশীর মাধ্যমে উনার সঙ্গে যোগাযোগ হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only