বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন, ২০১৯

নামায বন্ধ করা জন্য রাস্তা আটকিয়ে হনুমান চল্লিশা জপ করল বিজেপি!



২০১৯-এর লোকসভা ভোটের পর মেরুকরণের রাজনীতির খুল্লা প্রচার চালাচ্ছে বিজেপি। তার আরও একটি প্রমাণ পাওয়া গেল মঙ্গলবার সন্ধ্যেয় হাওড়ার বালি খাল সংলগ্ন এলাকায়। রাস্তা আটকিয়ে হনুমান চল্লিশা জোপ করল বিজেপির যুব মোর্চার সদস্যরা।

তাদের দাবি, শুক্রবার করে রাস্তা আটকিয়ে মুসলিমরা নামায আদায় বন্ধ না করলে, প্রতি মঙ্গলবার তারাও এই ভাবেই রাস্তা আটকিয়ে হনুমান মন্দিরগুলির কাছে জপ করবেন।
এ ব্যাপারে যুব মোর্চার স্থানীয় মুখ্য নেতা ওপি সিং জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজত্বে আমরা দেখেছি গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোজ সহ অন্যান্য প্রধান রাস্তা শুক্রবারের নামাযের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর ফলে যানজটের সৃষ্টি হয়। রোগীরা মারা যায়, যাত্রীরা সঠিক সময়ে অফিস পৌঁছতে পারে না। তাই এটা যতদিন চলবে,আমরাও পালটা এমন মন্ত্রপাট চালাব।

সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচন থেকে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি-তৃণমূলের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমশ বেড়েছে। বিজেপির গেরুয়াকরণের নীতির জন্য অশান্তি হয়ে উঠেছে বাংলা।  
সম্প্রতি, ২৬ বছরের মাদ্রাসা শিক্ষক হাফিজ মুহাম্মদ শাহরুখ হালদারের ঘটনার কথাই বলা যায়। জয় শ্রী রাম বলতে অস্বীকার করায় তাঁর ওপর চড়াও হয় একদল বিজেপি কর্মী। ওই শিক্ষককে মারধর করা হয়। গত ২০ জুন পার্ক সার্কাস স্টেশনে কাছে ঘটনাটি ঘটে। বাসন্তী পুলিশ স্টেশন অঞ্চলের চুনাখালি এলাকার বাসিন্দা এই শিক্ষক ও তাঁর পরিবার ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। তবে রাজ্যপ্রশাসন এই শিক্ষকের পাশে দাঁড়িয়েছে। চিকিৎসার জন্য তাকে ক্ষতিপূরণও দিয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only