শুক্রবার, ২১ জুন, ২০১৯

তুরস্কে অগ্নিসাক্ষী রেখে বিয়ে বসিরহাটের সাংসদ নুসরতের

সপ্তাহখানেক আগে বিপুল ভোটে জিতে বসিরহাটের সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন টলিউড নায়িকা নুসরত জাহান। জেতার পরেই হাজির হয়েছিলেন আজমির শরিফ দরগায়। সেই ছবি পোস্টও করেছিলেন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে। তারপর প্রকাশ্যে এসেছিল ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের ব্যাপারটি। এবার জীবনের দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু করলেন তিনি। সুদূর তুরস্কের বোদরুমে বুধবার অগ্নিসাক্ষী রেখে পাত্র নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ের গাঁটছড়া বাঁধলেন। নুসরতের বিয়ের ছবি প্রকাশিত হতেই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কনে বেশে অভিনেত্রীকে দেখা গেছে একাধিক ছবিতে– বিয়ের সময়ের ছবিও ছড়িয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে– নুসরত একেবারে হিন্দু নিয়ম মেনে অগ্নিসাক্ষী রেখে বিয়ে করছেন নিখিলকে। লাল লেহেঙ্গা– বরমাল্য– হাতে চূড়া। পাশে হাসি মুখে হালকা গোলাপি শেরওয়ানি পরে রাজপুত বরবেশে নিখিল।
বিয়ের মন্ত্রোচ্চারণের জন্য উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল পুরোহিতকে। ছবিতে তাঁকেও দেখা যাচ্ছে পাশে বসে থাকতে। সামনে জ্বলছে আগুন। এই আগুন জ্বালানোর জন্য রিসর্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে অনুমতি নিতে হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। একটি ভিডিয়োতে দেখা গেছে– হেঁটে বিয়ের মঞ্চের দিকে যাচ্ছেন নুসরত জাহান। আগুন ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামনে রেখে সংস্টৃñত মন্ত্র পাঠ করে চলেছেন পুরোহিত। পাশের চেয়ারে বসে নুসরত হাত রাখেন নিখিল জৈনের হাতে। বর-কনেকে সবাই হাততালি দিয়ে স্বাগত জানান। সূত্রের খবর– বিয়েতে আমন্ত্রিতের তালিকা খুব একটা লম্বা ছিল না। পারিবারিক আত্মীয়স্বজন ও কয়েকজন বন্ধু-বান্ধব নিয়ে নিখিল-নুসরত সেরে ফেলেছেন বিবাহপর্ব। তবে নুসরতের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও যাদবপুরের নবনির্বাচিত সাংসদ মিমি চক্রবর্তী এই বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে। এই নবদম্পতির বিয়ের রিসেপশন হবে ৪ জুলাই– কলকাতার আইটিসি রয়াল বেঙ্গলে। তার আগেই সংসদে যোগ দিতে বসিরহাটের সাংসদ দেশে ফিরছেন ২৫ জুন। সাংসদ হিসেবে নুসরত ও মিমি এখনও শপথ নেননি। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only