শুক্রবার, ৭ জুন, ২০১৯

পণের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা করল স্বামী-শ্বাশুড়ি

দেবশ্রী মজুমদার, বোলপুর, ০৭ জুনঃ  বিয়ে হয়েছিল আট বছর আগে। দুর্গাপুরের মায়াবাজার এলাকার বাসিন্দা রাজকুমার হাড়ির মেয়ে রজনী (২৬), শান্তিনিকেতন থানার রূপপুর পঞ্চায়েতের উত্তর নারায়ণপুর গ্রামের প্রসেঞ্জিত হাজরা। পণের দাবিতে প্রায় অত্যাচার করা হত স্ত্রী'র উপরে। বিয়ের তিন বছর পর একটা মেয়ে হয় তাদের। এরপর অত্যাচার আরও বাড়তে থাকে। দু’সপ্তাহ আগে পণের জন্য একলাখ টাকা দাবি করা হয়। মেয়ের বাবা রাজকুমার হাড়ি জানান, কোন রকমে ৫০ হাজার টাকা জোগা করে দেওয়া হয়। কিন্তু বাকি টাকার দাবিতে ফের অত্যাচার বাড়ে। মেয়েকে গলায় দড়ির ফাঁস লাগিয়ে মেরে ফেলে তারা। এই ঘটনায় স্বামী প্রসেঞ্জিত হাজরা ও শ্বাশুড়ি সরস্বতী হাজরাকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। পুলিশ ওই গৃহ বধূর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only