শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০১৯

সক্রিয় মহিলা তৃণমূল কর্মীকে গুলি করে খুন, বিজেপির দাবি তাদের কর্মী ছিলেন ওই মহিলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, পুবের কলম, বসিরহাটঃ- হাসনাবাদে সক্রিয় মহিলা তৃণমূল কর্মীকে মাথায় গুলি করে খুন করায় চাঞ্চল্য এলাকায়। বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ থানা তোকিপুরের চারা বটতলার ঘটনা। বৃহস্পতিবার রাত নটা নাগাদ বাড়ির বাইরে বের হলে রাতের অন্ধকারে দুষ্কৃতীরা এসে মাথায় গুলি করে দেয়। বছর ৩৬ এর সরস্বতী দাস ঘটনাস্থলে মারা যান। পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে। টাকি গ্রামীণ হাসপাতালে পাঠানো হয়। স্বামী শুভঙ্কর দাসের দাবি, সরস্বতী সক্রিয় তৃণমূল কর্মী। ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনে আমলানি গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান মিঠু মন্ডল এর সঙ্গে বিজয় মিছিলে বেরিয়েছিলেন ।এলাকায় তৃণমূলের নেত্রী হিসেবে পরিচিত। পুলিশ তদন্ত করে দুষ্কৃতীদের দৃষ্টান্তমূলক মূলক  শাস্তি দিক। অভিযোগ বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের এই ঘটনা ঘটিয়েছে। খুনের মোটিভ দেখে পুলিশের অনুমান ব্যবসা সংক্রান্ত অথবা প্রণয় ঘটিত কারণে মৃত্যু হতে পারে। তদন্তে হাসনাবাদ থানার পুলিশ।
হাসনাবাদ আমলানি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রোকেয়া বিবি বলেন, সরস্বতী তাদের তৃণমূল দলের কর্মী। দলীয় কাজকর্মের সঙ্গে লিপ্ত ছিলেন। তাকে পরিকল্পনা করে খুন করা হয়েছে। স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের দাবি কিছুদিন আগে সরস্বতী দাস  বিজেপি তে জয়েন করে। তাকে পরিকল্পনা করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা খুন করেছে।  ময়নাতদন্তের পর গৃহবধূর মৃতদেহ নিয়ে রাজনৈতিক টানাপোড়েন অব্যাহত ছিল শুক্রবারও। বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য   দাবি করছেন মৃত মহিলা বিজেপি কর্মী। উত্তর ২৪  পরগনা জেলা তৃণমূলের শিক্ষা তথ্য ও পরিবহণ দপ্তরের কর্মাধ্যক্ষ ফিরোজ কামাল গাজী বলেন,  বরাবরই সরস্বতী দাস তৃণমুলের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। লোকসভা নির্বাচনে আমাদের হয়ে প্রচার করেছেন। ভালো দক্ষ সংগঠক। তার স্বামীর শুভঙ্কর দাস এবং বাবারও দাবি  তাই। বলছেন তাদের মেয়ে তৃণমূল দল করত। আমাদের পরিবার তৃণমূলের ।যে কোন মৃত্যু দুঃখজনক । পরিবারের পাশে সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন এবং সমবেদনা জানিয়েছেন তৃনমুল নেতা ফিরোজ কামাল গাজী সহ দলীয় নেতারা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only