বুধবার, ৩১ জুলাই, ২০১৯

আদালতে মুখোমুখি প্রিন্সেস হায়া ও দুবাই শাসক!


সম্প্রতি দুই সন্তান নিয়ে ব্রিটেনে পালিয়ে গিয়ে ছিলেন প্রিন্সেস হায়া। এরপর থেকে দুবাইয়ের শাসক মুহাম্মদ আল মাখতুমের সঙ্গে তাঁর দেখা হয়নি। সম্প্রতি সন্তানদের অধিকার নিয়ে আইনি লড়াইয়ে ব্রিটেনের আদালতে মু্খোমুখি হলেন তাঁরা দু'জন।
প্রিন্সেস হায়া দুবাই শাসকের কনিষ্ঠমত স্ত্রী। সম্প্রতি স্বামীকে ছেড়ে দুই সন্তানকে নিয়ে তিনি লন্ডনে পালিয়ে গিয়েছে। প্রাণসংশয়ের আশঙ্কা করে তিনি এই পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।
উল্খ্যে জর্ডানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহর সৎ বোন হলেন হায়া। তিনি দর্শন, রাজনীতি ও অর্থনীতি নিয়ে ব্রিটেনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা করেছেন।৪৫ বছর বয়সী এই রাজকন্যা আন্তজার্তিক অলিম্পিক কমিটিতে ছিলেন। জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির শুভেচ্ছা দূত হিসাবেও কাজ করেন।
বর্তমানে, দুবাই শাসক প্রিন্স মাখতুমের সঙ্গে বিবাহ-বিচ্ছেদ চেয়ে লন্ডনে থাকা ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন হায়া। তবে প্রিন্স মাখতুম যদি তাঁকে ফিরিয়ে নিতে চান, তাহলে দুদেশে মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটবে বলে অনুমান করছেন সমালোচকরা।হায়া লন্ডনে পালিয়ে যাওয়ার পর প্রিন্স মাখতুম সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কবিতা পোস্ট করেন। তিনি প্রিন্সেস হায়াকে তিনি বিশ্বাসঘাতক বলেন। পরে তার উত্তর প্রিন্সেস হায়া তাঁর ঘনিষ্টদের মারফৎ জানান লন্ডনে তিনি জীবনহানির আশঙ্কায় পালিয়ে ছিলেন। আসলে মাখতুমের মেয়ে, প্রিন্সেস লতিফার পালিয়ে যাওয়ার সম্পর্কে গোপন তথ্য জেনে ফেলে ছিলেন প্রিন্সেস হায়া।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only