শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৯

প্রয়াত দিল্লির প্রাক্তণ মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত

প্রয়াত হলেন দিল্লির প্রাক্তণ মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত। দিল্লির একটি বেসরকারি হাসপাতালে শনিবার দুপুর ৩.৫৫ মিনিট নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়ে ছিল  ৮১ বছর। বহুদিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। এদিন সকালে তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে, তাঁকে দিল্লির ফর্টিস্ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  চিকিৎসকদের একটি দল তাকে দীর্ঘক্ষণ পর্যবেক্ষণে রাখছিলেন।
ফর্টিস হাসপাতালের পরিচালক ড. অশোক শেঠ জানিয়েছেন, অভিজ্ঞ চিকিৎসকের একটি দল শীলা দীক্ষিতের চিকিৎসা করছিলেন। কিন্তু, দুপুরের দিকে আবার হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। এই সময় তাঁকে ভ্যান্টিলেটারে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি।
কংগ্রেসের অভিজ্ঞ ও দাপুটে নেত্রী হিসাবে পরিচিত ছিলেন শীলা। তিনি তিনদফা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। দিল্লির উন্নয়ন ও প্রগতিতে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। দিল্লির পরিবহন ব্যবস্থার ঢালাও উন্নয়ণ ঘটে ছিল তাঁর হাত ধরেই। বহু প্রতিকূলতাকে পার করে মেট্রো পরিষেবা মত দ্রুত পরিবহন ব্যবস্থা দিল্লিবাসীকে উপহার দিয়ে ছিলেন তিনিই।
অভিজ্ঞ এক নেত্রীকে হারানোয় শোকেরছায়া নেমে এসছে কংগ্রেসের অন্দরে। কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধি, প্রাক্তণ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি শীলা দীক্ষিতের প্রয়াণে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। রাহুল গান্ধি একটি টুইটবার্তায় বলেছেন, শীলাজি এই চলে যাওয়ার খবর আমাকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে দিয়েছে। তিনি কংগ্রেসের প্রিয় কন্যা হিসাবে পরিচিত ছিলেন। তার সঙ্গে আমাদের আত্মীকযোগ ছিল। আমি তার পরিবারের প্রতি সমব্যাথী। শীলা দীক্ষিতের মৃত্যুর বার্তা পৌঁছাতে সোনভদ্র থেকে ধর্ণা স্থগিত করে সেখান  দিল্লিতে ছুটে আসেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি।  
এদিকে, শীলা দীক্ষিতের প্রয়ানে রিবোধী শিবির থেকে আসতে থাকে শোকবার্তা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শীলা দীক্ষিতের পরিবারকে সমবেদেনা জানিয়েছেন। তিনি টুইটবার্তায় লেখেন, শীলাজির মৃত্যুতে গভীরভাবে দুঃখিত। একটি উষ্ণ এবং সম্মানজনক ব্যক্তিত্ব ছিলেন তিনি। দিল্লি উন্নয়নে তাঁর উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে। তার পরিবার ও সমর্থকদের সমবেদনা জানাচ্ছি, ওম শান্তি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only