মঙ্গলবার, ৩০ জুলাই, ২০১৯

ক্ষমতায় ফিরেই টিপু জয়ন্তী বাতিল করলেন ইয়েদুরাপ্পা

 ক্ষমতায় ফিরেছেন ২৪ ঘণ্টাও হয়নি। তারমধ্যেই ইয়েদুরাপ্পা সরকারের সর্বপ্রথম সিদ্ধান্ত– রাজ্যে টিপু জয়ন্তী উদ্যাপন কর্মসূচি বাতিল করা। অর্থাৎ– বর্তমান সরকার যে সবথেকে বেশি গুরুত্ব হিন্দুত্বকেই দেবে তা ক্ষমতায় আসতে না আসতেই তাদের এই তড়িঘড়ি সিদ্ধান্ত থেকেই স্পষ্ট।
টিপু জয়ন্তী অনুষ্ঠানকে ‘বিতর্কিত’ ও ‘সাম্প্রদায়িক’ তকমা দিয়ে তা বাতিল করার নির্দেশ দিল ইয়েদি সরকার। মঙ্গলবার নয়া সরকারের তরফে এই কর্মসূচি বাতিল করার নির্দেশ আসে। এদিন সকালেই ইয়েদি সরকারে পক্ষ থেকে টু্যইট করে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলা হয়– ‘আমাদের সরকার বিতর্কিত ও সাম্প্রদায়িক টিপু জয়ন্তী অনুষ্ঠান বাতিল করেছে। উল্লেখ্য– কংগ্রেস পরিচালিত সিদ্দারামাইয়া সরকার ক্ষমতায় থাকার সময় প্রতিবছর ১০ নভেম্বর মহিশূরের শাসক টিপু সুলতানের জন্মদিবস উপলক্ষে এই টিপু জয়ন্তী অনুষ্ঠান করা হত। ইয়েদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর সেই অনুষ্ঠানে এবার বড় কোপ পড়ল। উল্লেখ্য– বিগত কংগ্রেস সরকারের আমলে টিপু জয়ন্তী পালন করা নিয়ে অশান্ত হত রাজ্য। বিজেপি ছাড়াও রাজ্যের একাধিক উগ্র হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠী এই অনুষ্ঠানের তীব্র বিরোধিতা করে রাস্তায় নামত। ফলে টিপু জয়ন্তী উদ্যাপনকারীদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠত রাজ্য। গেরুয়া শিবিরের অপপ্রচার– টিপু নাকি সাম্প্রদায়িক শাসক ছিলেন। হিন্দু বিরোধী ছিলেন। বহু মন্দির ধ্বংস করেছিলেন। যদিও ইতিহাসবিদরা উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের এই তত্ত্ব মানতে নারাজ।   


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only