রবিবার, ২৮ জুলাই, ২০১৯

দেশদ্রোহিতার মামলা ৪৯ বুদ্ধিজীবীর বিরুদ্ধে

প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি দিয়েছিলেন দেশের ৪৯ জন বুদ্ধিজীবী। ধর্মকে হাতিয়ার করে দলিত ও মুসলিমদের ওপর যে গণপিটুনি চলছে তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তাঁরা। এবার দেশের এই ৪৯জন বুদ্ধিজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হল বিহারের এক আদালতে। মামলার কারণ জানতে চাওয়া হলে আবেদনকারী বলেন, ওঁরা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছেন। সে কারণেই তাঁরা প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি দিয়েছেন। ৩ আগস্ট হবে এই মামলার শুনানি।
দীর্ঘদিন ধরে বিরোধীরা বলে আসছিল সরকারের সমালোচনা করলেই দেশদ্রোহী বলে দেগে দেওয়া হচ্ছে।তাঁদের এই অভিযোগ যে আগাগোড়াই ভিত্তিহীন নয়– এদিন ফের তা একবার প্রমাণ হল। গেরুয়া শিবির অবশ্য যুক্তি দিয়ে বলবে এর সঙ্গে দলের কোনও সম্পর্ক নেই। আবেদনকারী সুধীর কুমার ওঝা নামের এই আইনজীবী কোন দলের তাও স্পষ্ট নয়। মামলায় তিনি দাবি করেছেন– ‘দেশের ভাবমূর্তি ভূলুণ্ঠিত করতে দেশের ৪৯জন বুদ্ধিজীবী এই কাজ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর চমকপদ সাফল্যকে খাটো করে দেখানোই তাঁদের উদ্দেশ্য।’
বিজেপি বিরোধী বুদ্ধিজীবীদের বহুবারই শহুরে নকশাল বলে অভিহিত করার চেষ্টা হয়েছে। এদিন সুধীর কুমারও এই অভিমতকে সমর্থন করলেন। তাঁর দাবি– ৪৯জন বুদ্ধিজীবী বিচ্ছিন্নতাবাদী প্রবণতার বশবর্তী হয়ে এই কাজ করেছেন।
যে ৪৯জন বুদ্ধিজীবী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খোলা চিঠি দিয়েছিলেন তাঁদের মধ্যে রয়েছেন আদুর গোপালকৃষ্ণান– শ্যাম বেনেগাল–  সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়– বিনায়ক সেন– রামচন্দ্র গুহ– মণিরbম– অপর্ণা সেন গৌতম ঘোষ– সুভা মুদগল– অনুরাগ কাশ্যপ– কৌশিক সেন– র*পম ইসলাম সহ ৪৯জন। বুদ্ধিজীবীদের বক্তব্য ছিল কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদি জমানায় বেড়েছে ধর্মের নামে হিংসার রাজনীতি। দলিত সম্প্রদায়ের মানুষজনের উপর ও সংখ্যালঘুদের উপর গণপিটুনির ঘটনাও বেড়েছে। গুজব রটিয়ে খুন করা হচ্ছে বহু মানুষকে। ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানকে উসকানিমূলক রণহুংকারে পরিণত করার চেষ্টা চলছে। ধর্মের নামে এই হিংসা অবিশ্বাস্য। বুদ্ধিজীবীরা চিঠিতে নরেন্দ্র মোদিকে মনে করিয়ে দেন যে এটা বর্বরযুগ নয়। তাছাড়া প্রহারের মন্ত্র হিসেবে ‘জয় শ্রীরাম’ ব্যবহার হবেই বা কেন? সংখ্যাগুরুরা শ্রীরামচন্দ্রকে শান্তির প্রতীক বলে মনে করেন। স্বাভাবিকভাবেই রামের নাম ব্যবহার করে যে হিংসা চালানো হচ্ছে তা গরিষ্ঠসংখ্যক মানুষের মনে আঘাত করছে। অবিলম্বে তা বন্ধ হওয়া উচিত। রামের নাম করে এইভাবে হিংসা চলতে দেওয়া যেতে পারে না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only