রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০১৯

স্বরুপনগর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে মৃত নিরীহ গ্রামবাসী, এলাকায় উত্তেজনা

পুবেরকলম প্রতিবেদক, বসিরহাটঃ বিএসএফের গুলিতে মৃত্যু হল এক  নিরীহ গ্রামবাসীর। এলাকায় উত্তেজনা, বিক্ষোভ।
 বসিরহাট মহকুমার স্বরূপনগর থানার ভারত ও বাংলাদেশ  সীমান্তের তারালী গ্রামের ঘটনা। রবিবার ভোররাতে বছর ৩২ এর যুবক মোস্তফা গাজী চাষের কাজের  জন্য মাঠে যাচ্ছিল। সেই সময় পাচারকারী সন্দেহে ১৭৯ নম্বর ব্যাটালিয়নের সীমান্তরক্ষী গুলি চালালে তার বুকে গুলি লাগে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে স্বরূপ নগর শাঁড়াপুল গ্রামীণ হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বসিরহাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি করলে রবিবার বিকেল চারটে নাগাদ তার মৃত্যু হয়। বিএসএফের গুলিতে মোস্তফার মৃত্যুর এই ঘটনা গ্রামে পৌঁছতে  তার পরিবার ও স্থানীয় বাসিন্দারা ক্ষোভে ফেটে পড়ে। বিএসএফকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায়। যদিও বিএসএফ এর তরফ থেকে  দাবি করা হয় মোস্তফা  পাচারের সঙ্গে যুক্ত ছিল। কিন্তু  পরিবারের দাবি সকালবেলা মোস্তফা মাঠে চাষ করতে যাচ্ছিল। সেই সময় সম্পূর্ণ অন্যায় ভাবে সীমান্তরক্ষী বাহিনী তাকে গুলি করে মেরে দিয়েছে। মোস্তফার স্ত্রী আজিরা বিবি ও পরিবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে। মোস্তফার মৃত্যু নিয়ে সীমান্তরক্ষী বাহিনী ও পুলিশ প্রশাসনের মধ্যে চাপানউতর শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ ও বসিরহাট সীমান্তে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।  মোস্তফার   মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বসিরহাট জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনার জেরে পুলিশের কাছে একটা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মৃত মোস্তফার পরিবার । ঠিক কী কারণে গুলি চালিয়েছে বিএসএফ,  এর পিছনে অন্য কিছু কারণ আছে কিনা,  সত্যিই পাচারকারী ছিল কিনা মোস্তফা তার পুর্ণ তদন্ত শুরু করেছে স্বরূপনগর থানার পুলিশ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only