বুধবার, ৩১ জুলাই, ২০১৯

কলকাতা মাতাল বাংলাদেশি খাবার

মাছ, মাংস, বিরিয়ানি, নিরামিষসহ নানান ঐতিহ্যবাহী পদে কলকাতা মাতাল বাংলাদেশি খাবার। বাংলাদেশি এক বধূ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে উপকরণ নিয়ে কলকাতায় করেছেন এই রান্নার আয়োজন। বাংলাদেশের ১৫টি জেলার ঐতিহ্যবাহী খাবার নিয়ে কলকাতায় শুরু হয় ‘পদ্মাপারের পাকঘর’ নামের আয়োজনটি। ১৩ দিনের এই আয়োজন আজ বুধবার রাতে শেষ হচ্ছে।১৯ জুলাই কলকাতার অভিজাত হোটেল দ্য অ্যাস্টরে এ আয়োজন শুরু হয়।

বাংলাদেশের নানান ধরনের খাবার নিয়ে এই ‘পদ্মাপারের পাকঘর’ খুলেছিলেন বাংলাদেশের বধূ রাঁধুনি নয়না আফরোজ। নয়নার বাড়ি এখন বাংলাদেশে হলেও তিনি ছিলেন কলকাতার মেয়ে। এক বাংলাদেশিকে বিয়ে করে হয়ে যান বাংলাদেশের বধূ।

১৩ দিনব্যাপী চলা এই পাকঘরে রান্না হয়েছে বাংলাদেশের ১৫টি জেলার নানান ঐতিহ্যবাহী খাবার। একেবারে জিবে জল আনা খাবার। মাছ–মাংস ছাড়াও আয়োজন ছিল নিরামিষ, নানান ফলমূলের নানান পদ। বৈচিত্র্যময় বিরিয়ানি থেকে মাছ ও মাংসের নানান পদ। ইলিশ তো ছিলই। মাছ–মাংসের পদেরও শেষ ছিল না এই পাকঘরে!

১৯ জুলাই এই পাকঘরের উদ্বোধন করেছিলেন কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান। ওই সময় তিনি বলেন, ‘বিদেশের মাটিতে থেকে আজ সত্যিই বাংলাদেশের খাবারের প্রকৃত স্বাদ পেলাম। আশা করা যায়, কলকাতার ভোজনপ্রিয়রা এই খাবার খেয়ে পরিতৃপ্ত হবেন।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only