মঙ্গলবার, ৩০ জুলাই, ২০১৯

মাদ্রাসাতে কী হয়, দেখে আসলেন 'সহমন' সদস্যরা

মাদ্রাসা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা নানা কথা বলেছেন।জঙ্গিবাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়, হেন মন্তব্য করতে অনেকে দ্বিধাবোধ করেননি। সেসব যে কতটা ভিত্তিহীন তা মাদ্রাসা ঘুরে এসে লিখেছেন সুমন সেনগুপ্ত।

বেসরকারি খারেজি মাদ্রাসার চালচিত্র : 'সহমন'-এর এক সহাবস্থানী অনন্য প্রয়াস
================================================

সহমনের পক্ষ থেকে আমরা কিছুজন আজ গেছিলাম উত্তর ২৪ পরগণার , হাড়োয়াতে দুটো মাদ্রাসাতে । শুধু দেখা নয় ওখানকার বাচ্চাদের সঙ্গে কথা বলে বোঝার চেষ্টা করা, কি করে মুসলমান অনাথ বাচ্চারা পড়াশুনা করে , থাকে। কি পড়ে? যখন চারিদিকে প্রচার হচ্ছে যে প্রতিটি মাদ্রাসা নাকি সন্ত্রাসবাদের আখড়া, ওখানে নাকি একটা গোপন ঘর আছে যেখানে নাকি অস্ত্র প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়, তখন আমরা দেখতে গেছিলাম নিজেদের চক্ষু কর্ণের বিবাদ ভঞ্জন করার জন‍্য যে সত‍্যিই কি তাই হয় ?
রাকিবুল যার মা মারা গেছে , বাবা ছেড়ে দিয়ে কোথায় চলে গেছেন সে পড়ছে ওই মাদ্রাসাতে।শিখছে বাংলা বর্ণমালা বয়স ৭ বছর, প্রায় আমার মেয়ের বয়সী। পড়াশুনা করছে, বিকেলে খেলছে।
আমাদের মতোই মানুষ , হ‍্যাঁ, ঠিক পড়লেন আমাদের মতো ওর ও দুটো হাত পা আছে। ওর সমস‍্যা ও খুব গরিব ঘরের প্রায় অনাথ একটি ছেলে যে অনেক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত।

সে পড়ছে প মানে পতাকা , ভারতের পতাকার মান রাখা আমাদের কাজ। যারা ভাবেন যে মুসলমানেরা পাকিস্তানি, তাদের জন‍্য আমরা এই কাজটা করবো। আপনারা চাইলে যুক্ত হতে পারেন। আমরা সানন্দে যোগ দিতে পারেন, আমরা আবার যাবো।

না , জোর গলায় বলছি মাদ্রাসা সন্ত্রাসবাদের জায়গা নয়। ওখানকার মুফতি সাহেবরাও বললেন হুগলির সাংসদ বিজেপির লকেট চ‍্যাটার্জী যখন বলেন ওই কথাগুলো তখন আমাদের সহমনের এই উদ‍্যোগটা অবশ‍্যই অন‍্যরকম। অনুরোধ করলেন আমরা যেন এই কথাগুলো প্রচার করি।

ওরা সংবিধান শিখছে, গণিত শিখছে। ভাষা শিখছে, সঙ্গে কোরানও শিখছে। ওরা আমার আপনার বাড়ির বাচ্চাদের মতোই। ওদেরও দুষ্টুমি আছে। ওরাও খুশি হয় কোনো উপহার পেলে। আমরা হাতে করে পেন, পেন্সিল , লজেন্স নিয়ে গেছিলাম , ওরা তাতেই খুশি।

সব শেষে ' ওরা ' শব্দটার জন‍্য ক্ষমা চেয়ে নিলাম।
সহমন এই কাজটা করবে ছোট ছোট করে, মানুষের কাছে যাবে আর এই অভিজ্ঞতাগুলো সামনে নিয়ে আসবে। এই টুকুই তো কাজ।
দস্তরখান বিছিয়ে একসঙ্গে বসে ফল খাওয়া একসঙ্গে গল্প করা এইটুকুতে উনারাও খুশি হলেন, আর আমরা কি পেলাম --- ভালবাসা, যেটার বড় অভাব আজকের সময়ে।
--------------------------------------
সৌজন্য– সুমন সেনগুপ্ত 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only