বুধবার, ৩ জুলাই, ২০১৯

কেন জার্মানিতে পালিয়েছেন দুবাই প্রিন্সেস হায়া?


সম্প্রতি ছেলে-মেয়েকে নিয়ে দুবাই শাসক শেখ মুহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুমের স্ত্রী প্রিন্সেস হায়া বিনতে আল হুসাইন জার্মানিতে আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু কেন এই পদক্ষেপ নিতে গেলেন হায়া। তার ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন, জীবন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে শুরু করে ছিলেন প্রিন্সেস। কারণ তাঁর সৎ মেয়ে প্রিন্সেস লতিফার দুবাইয়ে থেকে পালিয়ে যাওয়া নিয়ে রহস্যজনক কিছু তথ্য জানতে পেরে গিয়ে ছিলেন হায়া। মুখ বন্ধ রাখার জন্য তাঁর ওপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছিল বলে অভিযোগ। তাতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে শুরু করেন তিনি। এরপরই ছেলে-মেয়েকে নিয়ে পালানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ছিলেন বলে দাবি করেছে তার ঘনিষ্ঠমহল।
প্রিন্সেস লতিফার ঘটনায় রাজপরিবারের ভাবমূর্তি রক্ষা করতে প্রিন্সেস হায়া সে সময় আইরিশ প্রেসিডেন্ট ম্যারি রবিনসনের সঙ্গে কথা বলে ছিলেন। দুবাই কর্তৃপক্ষ বলছে, শেখ লতিফা এখন দুবাইয়ে নিরাপদে আছেন। তবে মানবাধিকার সংস্থাগুলির দাবি, তাকে অপহরণ করে দুবাই ফেরানো হয়েছে এবং সেখানে তাকে আটকে রাখা হয়েছে। বেশ কয়েকদিন আগে প্রিন্সেস লতিফা এক ফরাসি নাগরিকের সাহায্যে গোয়া থেকে পালানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ভারতীয় উপকূলরক্ষীদের দল তাকে উদ্ধার করে এবং রাজপরিবারের হাতে তুলে দেয়। প্রিন্সেস হায়াকেও অপহরণের করে দুবাইয়ে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হতে পারে বলে দাবি করেছে একটি সূত্র।
জর্ডানের বাদশাহ কিং আবদুল্লাহ সৎ বোন হলেন প্রিন্সেস হায়া। তিনি সম্প্রতি স্বামীর কাছে থেকে তালাক চেয়েছে।বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদনের পরপরই তিনি জার্মানি পালিয়ে যান। দুই সন্তান জালিলা এবং জায়েদের সঙ্গে তিন কোটি লক্ষ পাউন্ড নিয়ে দুবাই থেকে পালিয়েছেন। বিশ্বের অন্যতম ধনকুবের প্রিন্স রশিদ মাকতুম জার্মান কর্তৃপক্ষের কাছে তার স্ত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার আবেদন জানিয়ে ছিলেন। কিন্তু জার্মান কর্তৃপক্ষ তার সেই অনুরোধ রাখেনি।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only