শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০১৯

খড়গপুরের আইআইটি সাহায্যে বাঁচবে বর্ধমানের মিষ্টি হাব


কাজল মির্জা, বর্ধমান: বর্ধমানের মিষ্টি হাবকে ঘুরে দাঁড়া করাতে আইআইটি খড়গপুরের বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নিচ্ছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। এক সপ্তাহের মধ্যে ওই সংস্থার বিশেষজ্ঞরা বর্ধমানে আসছেনই। মিষ্টি হাব খতিয়ে দেখে তাঁরা যে পরামর্শ দেবেন। সেই মতো প্রচার, প্রযুক্তিগত সহায়তা বা অন্যান্য নির্দেশ মেনে কাজ করবে জেলা প্রশাসন। একইসঙ্গে গুণগত মান বজায় রাখতে মিষ্টি হাবে ল্যাবরেটরিও রাখার ব্যবস্থা করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।
মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্প 'মিষ্টি হাব' বর্ধমান শহরের বাম চাঁদাইপুরের কাছে বছর তিনেক আগে গড়ে উঠে।কিন্তু সেই হাবের ব্যবসায়ীরা লোকসানের পড়ে বেশির ভাগ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ পড়ে রয়েছে। এই পরিস্থিতে মিষ্টি হাব বাঁচাতে বৃহস্পতিবার বর্ধমানে জেলা শাসকের সভাকক্ষে বৈঠক করে জেলা প্রশাসন।

রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, জেলা শাসক বিজয় ভারতী, জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, সহকারী সভাধিপতি দেবু টুডু-সহ অন্যান্য আধিকারিকরা সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া হাজির ছিলেন মিষ্টি হাবের ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধিরাও।
স্বপনবাবু বলেন, 'এই প্রকল্পকে জনপ্রিয় ও লাভজনক করতে খড়গপুর আইআইটির সাহায্য নিচ্ছি আমরা। তাদের পরামর্শ মেনে এটাকে ভালভাবে চালু রাখার জন্য যা যা করার তা করব। বিপণনের পাশাপাশি প্রচার ও মিষ্টান্ন সামগ্রীর গুণগত মান বজায় রাখা বা বাড়ানোর জন্য আইআইটি-র বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে'

জানা গিয়েছে, অধ্যাপক এইচ এন মিশ্র তাঁর টিম নিয়ে বর্ধমানে আসছেন। এক সপ্তাহের মধ্যে তাঁরা পরামর্শ দেবেন কী কী করতে হবে মিষ্টি হাবকে লাভজনক করতে। জেলা শাসক জানান, বর্ধমানের সীতাভোগ-মিহিদানা জিওগ্রাফিক্যাল আইডেন্টিফিকেশন রেজিস্ট্রেশন পেয়েছে। কিন্তু, বাংলার এই ঐতিহ্যবাহী মিষ্টিগুলির তেমন প্রচার হয়নি। সারা রাজ্যজুড়ে এগুলির প্রচারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পাশাপাশি, এখানকার মিষ্টান্ন বাইরে রফতানির জন্য সঠিক প্যাকেজিং-এর প্রয়োজন। সেটার সঠিক ব্যবস্থা করতে না পারায়, ব্যবসায়ীর লোকসানের সম্মুখীন হচ্ছেন।

মন্ত্রী স্বপনবাবু জানান, এখানে মিষ্টি ছাড়াও অন্যান্য ব্র্যান্ডেড খাদ্য সামগ্রী যেমন পিৎজা-সহ অন্যান্য খাবারের স্টল বা কাউন্টার রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে এখানে খাবারের গুণগত মান ঠিক রাখতে মিষ্টান্ন তৈরিতে ব্যবহৃত উপাদান ও  উৎপাদিত মিষ্টান্নের গুণগত মান পরীক্ষার ব্যবস্থা রাখা হবে। জেলা শাসক বলেন, "ল্যাবরেটরির প্রয়োজন রয়েছে। আইআইটির বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে যন্ত্রপাতি রাখা হবে এখানে।"

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only