শনিবার, ৬ জুলাই, ২০১৯

এবার নাৎসি কায়দায় রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে মায়ানমার!

রাখাইনের বন্দি শিবিরে আটক রোহিঙ্গাদের ওপর নাৎসি কায়দায় নির্যাতন চালানো হচ্ছে, মায়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে এমনই গুরুত্ব অভিযোগ এনেছেন রাষ্ট্রসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশনের এক সদস্য ক্রিস্টোফার সিদোতি।

তিনি বলেছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইউরোপের বন্দিশিবির থাকা ইহুদিদের ওপর হিটলারের নাৎসি বাহিনী যেভাবে নির্যাতন চালিয়ে ছিল, ঠিক ওই পন্থাতে রোহিঙ্গা বন্দিদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে মায়ানমার।

সম্প্রতি লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত সম্মেলনে ক্রিস্টোফার সিদোতি বলেন, নির্যাতনের কারণে ১ লক্ষ ২৮ হাজার রোহিঙ্গা বিভিন্ন বন্দি ও আশ্রয় শিবিরে রয়েছে। তারা যাতে অন্য কোথাও যাতে পারে জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সেখানে তাদের বিয়ে করা বা সন্তান নেওয়ার অধিকার নেই। জাতিটিকে পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার জন্যই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, সিত্তে নামে একটি শহরতলিতে রোহিঙ্গাদের জন্য তিনটি জায়গা রয়েছে।সেখানে বহু রোহিঙ্গা রয়েছে, যাদের অবস্থা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইহুদীদের মতো। মায়ানমার সেনা তাদের উদ্দেশ্য পুরণ করলেও সংকট এখনও দূর হয়নি।

মায়ানমারে মাত্র ৪ থেকে ৫ লক্ষ রোহিঙ্গা রয়েছে। ২০১২ সালেও এ সংখ্যা ছিল ২০-৩০ লক্ষ। গত দুবছর ধরে ব্যাপক গণহত্যা চালানো হয়েছে। কয়েক লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশের আশ্রয় নেয়। তারা রাখাইনে পড়ে থাকলেন তাদের গ্রামের বাইরে যাওয়ার অনুমতি নেই। বিয়ে বা সন্তান নিতে হলে লাগে সরকারি অনুমতি। হাসপাতালে যেতে হলে ছয়টি প্রশাসনিক বিভাগের কাছে আলাদাভাবে অনুমতি নিতে হয়।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only