শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৯

রোগী স্থানান্তরে চালু অভিনব টোটো এ্যাম্বুলেন্স




নাসিবুদ্দিন সরকার, হুগলি: আরামবাগ মহকুমা ও সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের দূরত্ব চার কিলোমিটার। দুই হাসপাতালে রোগীদের স্থানান্তর করতে, অথবা এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে সিটি স্কেন, রক্ত পরীক্ষা করাতে যেতে কালঘাম ছুটে যেত রোগীদের পরিবার সদস্যদের।কষ্টের অন্ত ছিল না রোগীদেরও। কীভাবে তারা হাসপাতাল থেকে হাসপাতাল রোগীদের নিয়ে আসবেন তা ভেবে কূলকিনারা করতে পারতেন না। এ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা চালু থাকলেও সবসময় পাওয়া যেত না। তাই বাইরে থেকে গাড়ি, ভ্যান, বা টোটো ভাড়া করেই চলত রোগী স্থানান্তর।

রোগী ও তাদের পরিবারকে এমন হয়রানি থেকে মুক্তি দিতে এই দুই হাসপাতালের মধ্যে 'টোটো এ্যাম্বুলেন্স' পরিষেবা চালু হল।শুক্রবার এক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে হাসপাতালের রোগীদের সুবিধার্থে ওই পরিষেবার উদ্বোধন করেন আরামবাগের বিধায়ক কৃষ্ণচন্দ্র সাঁতরা।অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আরামবাগ পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন নন্দী, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গুণধর খাঁড়া, জেলা পরিষদের সদস্য শিশির সরকার, হাসপাতাল সুপার শিশির কুমার নস্কর প্রমূখরা।

জানা গিয়েছে, বিধায়ক তহবিলের অর্থ সাহায্যে ছ'টি এমন টোটো এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করা হয়েছে।এদিন চারটি এ্যাম্বুলেন্স চালু করা হয়।আরামবাগ মহকুমা হাসপাতাল ও সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের মধ্যে রোগী স্থানান্তরের অসুবিধা দূর করতেই ওই ব্যবস্থা করা হয় বলে জানান বিধায়ক।ওই পরিসেবা চালু হওয়ায় খুশি রোগী ও রোগীদের পরিবার।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only