শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৯

গরু অক্সিজেন দেয়, এবার মন্তব্য উত্তরাখণ্ড মুখ্যমন্ত্রীরও!

এর আগে উত্তরাখণ্ডের এক মন্ত্রী বলেছিলেন। আর এবার বললেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। যা নিয়ে আরও একবার বুদ্ধিজীবী মহলে আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত দাবি করেছেন, গরুই একমাত্র প্রাণী যারা অক্সিজেন নেয়– আবার অক্সিজেন ছাড়েও। গাছেদের মতো গরুও অক্সিজেন ত্যাগ করে। শুধু তাই নয়, মুখ্যমন্ত্রী আরও দাবি করেছেন, শ্বাসকষ্টের সমস্যা রয়েছে এমন রোগী গরুর গায়ে হাত বোলালে সুস্থ হয়ে যাবেন। গরুর সান্নিধ্যে বেশিক্ষণ থাকলে কুষ্ঠরোগ হয় না। বৃহস্পতিবার একটি ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। তাতে মুখ্যমন্ত্রীকে এই ধরনের মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছে। গরুর দুধ ও মূত্র থেকে ওষুধ তৈরি নিয়ে বলতে গিয়ে এই ধরনের মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। অনেকেই মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্য নিয়ে খিল্লি করতে শুরু করেছেন। কেউ কেউ কটাক্ষ করে বলেছেন, শ্বাসকষ্টে ভোগা রোগীকে আর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার দরকার নেই– গোয়ালে নিয়ে গেলেই হবে। যদিও রাজ্য সরকারের এক আধিকারিক জানান– মুখওমন্ত্রী সরাসরি এমনটা বলেননি। আসলে পাহাড়ি মানুষরা বিশ্বাস করেন গরু অক্সিজেন দেয়। মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের বিশ্বাসকে মর্যাদা দিয়েছেন। এর আগে এই উত্তরাখণ্ডেরই পশুকল্যাণ মন্ত্রী রেখা আর্যও দাবি করেছিলেন– গরুই একমাত্র প্রাণী যারা অক্সিজেন দেয়। গো-চোনার ঔষধি গুণাবলী নিয়েও বলতে দেখা যায় তাঁকে। গত বছর ২০ সেপ্টেম্বর উত্তরাখণ্ড বিধানসভায় সর্বসম্মতিতে তিনি একটি প্রস্তাবনা পাস করান গরুকে ‘রাষ্ট্রমাতা’র মর্যাদা দেওয়ার দাবিতে। অনুমোদনের জন্য তা কেন্দ্রের কাছে পাঠানোও হয়েছে। বিধানসভায় তিনি বলেছিলেন– গরুকে মাতৃত্বের অবতার হিসেবে দেখা হয়। মাতৃদু?ের পর গরুর দুধই নবজাতকের কাছে যে সর্বাপেক্ষা উত্তম তা বিজ্ঞানসম্মতভাবে বিবেচিত। 






একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only