সোমবার, ১২ আগস্ট, ২০১৯

ঈদের নামাজ পড়া হলো না ডাক্তারবাবুর

পুবের কলম প্রতিবেদকঃ
ডাঃ আকবর হোসেন, মেডিকেল অফিসার, ডায়মন্ডহারবার পঞ্চগ্রাম হাসপাতাল।  বরাবরই সুনামের সঙ্গে রোগীদের পরিষেবা দেন । এদিনও ব্যতিক্রম হলো না। ঈদ আযহার দিন ভোর ৩ টা ৩০।ইমার্জেন্সিতে মুমূর্ষু রোগী এসে হাজির। নিতে হলো আইসিইউতে। টানা প্রায় ৬ ঘন্টার লড়াই। দিনের আলো ফোটার পর  বেলা বাড়তে বাড়তে বেজে গেলো ন' টা। ততক্ষণে ঈদের নামাজ শেষ হয়ে গেল। শৈল বালা সামন্ত নামে ৭০ বছর বয়সী  যখন মৃত্যু শয্যায়, তখন ডাক্তার আকবর হোসেন বেমালুম ভুলে গেলেন ঈদের নামাজের কথা। একটাই লক্ষ্য  রোগীকে বাঁচাতে হবে। অবশেষে অনেকটাই সফল হলেন। চাকরির খাতিরে তিনি ত্যাগের উৎসবকে ত্যাগ করেই দিলেন?  ডাক্তার বাবু  জানান, ঈদ উল আযহার নামাজ হল ওয়াজিব।   আর মানুষের জীবন বাঁচানো ফরজ।  তাই সেই মুহূর্তে সহকর্মী না থাকায় পুরো দায়িত্ব নিয়ে নিলাম।ডিউটি আওয়ারের দিকে তাকাই নি। একজন দায়িত্বশীল চিকিৎসক তার যে ত্যাগের দৃষ্টান্ত আমাদের সামনে রাখলেন তা শিক্ষণীয়। পেশায় চিকিসক আকবর হোসেন রয়েছেন সমাজসেবায়ও। বেঙ্গল এডুকেশান ডেভলপমেনট ফাউন্ডেশনের   দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা সভাপতি। সংগঠনের  রাজ্য সম্পাদক শিক্ষক সাজাহান মণ্ডল জানান, ডাঃ আকবর হোসেন, নিজের পেশার গণ্ডিকে অতিক্রম করে সমাজকর্মী হিসাবে মানুষের পাশে দাঁড়ালেন। এই ঘটনা একদিকে যেমন সম্প্রীতির দৃষ্টান্ত তৈরি হল। অপরদিকে মানবধর্ম পালনে সমর্থ  একজন আদর্শ চিকিৎসক।   ডায়মন্ড হারবার পঞ্চগ্রাম হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ আকবর হোসেন সাহেব কে অভিনন্দন ও শুভেচছা জাননো হয়  বেডস পরিবারের পক্ষ থেকে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only