শনিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৯

এই দ্বীপ বিক্রির জন্য নয়, ট্রাম্পকে গ্রিনল্যান্ড


কোপেনহেগেন, ১৭ আগস্ট: ট্রাম্প গ্রিনল্যান্ড কিনতে চলেছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট সম্পর্কে এমনই একটি খবর প্রকাশ করেছিল মার্কিন সংবাদপত্র ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল। বিষয়টি সমানে আসতেই তরজা শুরু হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পে গোপন বাসনার কথা জানাতে পেরে সম্প্রতি গ্রিনল্যান্ডের বিদেশমন্ত্রী অ্যান লোন বাগার বলেছেন, 'এই দ্বীপ বিক্রির জন্য নয়, আমরা বিকোব না, তবে, ব্যবসা করতে চাই আমাদের দরজা খোলা রয়েছে।' স্পষ্ট এমন ভাষাতেই ট্রাম্পের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করল গ্রিনল্যান্ড।
আমেরিকার পরিসর বাড়াতে গ্রিনল্যান্ড দ্বীপ কেনার কথা নিয়ে চিন্তাভাবনা করছিলেন ট্রাম্প। সেকথা তিনি গোপন আলোচনায় তাঁর পরামর্শকদের জানিয়ে ছিলেন। তবে ট্রাম্প এমন ইচ্ছা কথা শুনে রীতিমত চমকে গিয়ে ছিলেন তাঁর পরামর্শকরা।তারা ভেবে ছিলেন বিষয়টি নিয়ে ডেনমার্কের সঙ্গে আলোচনা করা বৈধ হতে কি না। কারণ বর্তমানে গ্রিনল্যান্ড, ডেনমার্কের আওতাধীন থাকলেও অঞ্চলটির স্বায়ত্বশাসনের অধিকার হয়েছে। তাদের সরকারও আলাদাকিন্তু তাদের অর্থনীতি ডেনমার্কের ওপর নির্ভরশীল।
তবে ইতিমধ্যেই ডেনমার্কের রাজনীতিকরাও ট্রাম্পকে নিয়ে রীতিমত কৌতুক শুরু করে দেনডেনমার্কের প্রাক্তণ প্রধানমন্ত্রী লার্স লোকে রাসমুসেন একটি টুইটবার্তায় বলেন, 'এটা এপ্রিলফুলের জন্য লাভ রসিকতা হতে পারে। তবে এটা তার সময় নয়।' ডেনমার্কের আরও এক নেতা তথা পিপল'স পার্টির বিদেশ বিষয়ক মুখপাত্র সোরেস এসপারসেন বলেন, 'এটা যদি সত্যি ট্রাম্প মনস্থ করে থাকেন, এটাই হবে চূড়ান্ত প্রমাণ, যে ট্রাম্প পাগল হয়ে গিয়েছেন।'  
কিন্তু, মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই ইচ্ছা কোনও আযৌক্তিক নয়। কারণ, প্রকৃতি শক্তি খনি হিসাবে গ্রিনল্যান্ড অত্যন্ত সমৃদ্ধশীল অঞ্চল। ইউরেনিয়াম সম্ভর রয়েছে সেখানে। এতে আমেরিকা তার পারমাণবিক শক্তি সম্ভর আরও বাড়াতে পারবে। এছাড়া আমেরিকার নিরাপত্তার প্রশ্নে এই অঞ্লটি গুরুত্বপূর্ণ। কয়েকদশক ধরে আমেরিকার নর্দান সামরিক বিমান ঘাঁটি হয়েছে গ্রিনল্যান্ডে।১৯৫১ সালে সামরিক বিমান ঘাঁটি বানানোর জন্য আমেরিকা ও ডেনমার্কের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়ে ছিল।অঞ্চলটি আয়ত্বে চলে এলে চিন,রাশিয়া ওপর ভালো ভাবে এই অঞ্চল থেকে নজর রাখতে পারবে আমেরিকা। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only