বৃহস্পতিবার, ১ আগস্ট, ২০১৯

প্রথম ছয়মাসেই গাজাবাসীর একমাত্র ভরসা হয়ে উঠেছে এই হাসপাতাল



বহু বছর ধরে ইসরাইল আগ্রাসনের জেরে অবরুদ্ধ হয়ে রয়েছে গাজা। চিকিৎসা ও অর্থনীতি এখন তলানিতে ঠেকেছে অঞ্চলটির। কিন্তু এমন অন্ধকারের মধ্যেও মানুষকে আলোর দিশা দেখাচ্ছে গাজার এই সরকারি হাসপাতাল। ফিলিস্তিনি সরকারের অর্থানুকূল্যে ২০১৯ সালে গাজার একমাত্র আই হসপিটালের পথ চলা শুরু হয়ে ছিল। প্রথম ছয়মাসে হাজারের বেশি অস্ত্রোপচার হয়েছে। জানা গিয়েছে, ১৩৭০টি সার্জিকাল অপারেশন হয়েছে। সেগুলির মধ্যে ৭৫টি এমার্জেন্সি। রিপোর্ট বলছে ১৪৫ টি অপারেশন অভিজ্ঞ চক্ষু বিশেষজ্ঞ দিয়ে করানো হয়েছে। তা ছাড়া ইতিমধ্যে লোকাল অ্যানাসথিসিয়া দিয়ে ৬,৩৬৪টি ছোটখাটো অস্ত্রোপচার হয়েছে।গাজার এই সরকারি হাসপাতালে গত ছয় মাসে মোট ২৭ হাজার রোগী এসছেন।  
এই হাসপাতালের পরিচালক ড. আবদুল-সালেম সাব্বা জানিয়েছেন, অবরুদ্ধ গাজায় এই হাসপাতাল এখন বাসিন্দাদের ভরসার জায়গা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখানকার কর্মকর্তা নার্স, ও চিকিৎসকরা রোগীদের উপযুক্ত চিকিৎসা পাইয়ে দেওয়ার জন্য খেটে চলেছেন। ইসরাইলিদের জুলুমে আলো ও মেডিক্যাল অত্যাধুনিক সরঞ্জামের খামতি রয়েছে। তবু রোগীদের সঠিক চিকিৎসা পাইয়ে দেওয়ার জন্য নিরন্তর চেষ্টা চালিয়েছে যাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।  


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only