শুক্রবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৯

পেহলু খান হত্যায় অভিযুক্তদের মুক্তিতে তাজ্জব প্রিয়ঙ্কা গান্ধি

দু-বছর পূর্বে রাজস্থানে গোরক্ষকদের হাতে গণপ্রহারে মারা গিয়েছিলেন পেহলু খান। বুধবার রাজস্থানের একটি আদালতে সেই ঘটনায় অভিযুক্ত ৬ জনকে ‘উপযুক্ত প্রমাণ’-এর অভাবে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। যদিও মোবাইলে ধারণ করা ভিডিয়োতে পেহলু খানকে টেনে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা দেখা গিয়েছে। দেখতে পাওয়া গেছে অভিযুক্তদেরও। ‘বিচারের বাণী’র এই পরিণতি দেখে তাজ্জব দেশের সচেতন নাগরিকরা। সেই সঙ্গে অবাক কংগ্রেস নেতা প্রিয়ঙ্কা গান্ধিও। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন তিনি। প্রিয়ঙ্কা জানান– নিম্ন আদালতের এ হেন সিদ্ধান্ত অত্যন্ত হতাশাজনক। আমাদের দেশে অমানবিকতার কোনও স্থান থাকা উচিত নয় এবং গণপিটুনির মাধ্যমে হত্যা একটি নৃশংস ও জঘন্য অপরাধ।

পেহলু খান হত্যাসহ দেশে ঘটা গণপিটুনির ঘটনাগুলোকে বারবারই সমালোচনা করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে চাপে ফেলার চেষ্টা করেছে কংগ্রেস। অন্যদিকে, রাজস্থানে এখন কংগ্রেস-শাসিত সরকার। সুতরাং, কংগ্রেসের আমলেই পেহলু খান ন্যায়বিচার পেলেন না বলে দাবি একাংশের। আর এতে স্বভাবতই অস্বস্তিতে কংগ্রেস শিবির। সেই ড্যামেজ কন্ট্রোল করতেই কি প্রিয়ঙ্কার এই মন্তব্য, প্রশ্ন উঠেছে কংগ্রেস-বিরোধী রাজনৈতিক মহলে। তবে পেহলু খানের ইনসাফ যে হয়নি– সেই বিষয়টি স্বীকার করে প্রশংসার কাজ করেছেন কংগ্রেস নেত্রী। ইতিমধ্যেই রাজস্থানের গেহলট-সরকার মব-লিঞ্চিং রুখতে আইন এনেছে। এই পদক্ষেপের প্রশংসা করে প্রিয়ঙ্কা বলেন, পেহলু খানের ইনসাফ পাইয়ে দিয়ে এটি একটি ভালো উদাহরণ তৈরি করবে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only