শনিবার, ৩১ আগস্ট, ২০১৯

এন আর সি তে বাদ পড়া নাগরিকরা এবার কী করবেন, জানাল রাজ্য প্রশাসন

অসমে চূড়ান্ত  নাগরিক তালিকা (এনআরসি) আজ প্রকাশিত হল। ওই তালিকায় ঠাঁই হয়েছে ৩ কোটি ১১ লাখ লোকের। তালিকা থেকে বাদ পড়েছে ১৯ লাখ ৬ হাজার মানুষ। আজ সকাল ১০টায় অনলাইনে তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকা প্রকাশের পর ১৯ লাখ ৬ হাজার মানুষের ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তায় পড়ে গেল। বিজেপিশাসিত এই রাজ্যের পুলিশ জানিয়েছে, এনআরসি তালিকা প্রকাশের পর
কোনো রকম প্রতিবাদ বরদাশত করা হবে না। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত ২০ কোম্পানি আধা সামরিক বাহিনী রাজ্যে পাঠানো হয়েছে। মোট আড়াই হাজার এনআরসি সেবাকেন্দ্র আগলাতে শুরু করেছে নিরাপত্তারক্ষীরা। বরাক উপত্যকার করিমগঞ্জ, হাইলাকান্দিসহ স্পর্শকাতর ১৪ জেলার ওপর বিশেষ নজর রেখেছে প্রশাসন। এনআরসি ঘিরে গোটা রাজ্যের পরিবেশ থমথমে।

চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের আগের দিন শুক্রবার অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল রাজ্যবাসীকে শান্ত থাকার আবেদন জানিয়ে বলেছেন, কেউ যেন আতঙ্কগ্রস্ত না হন। যাঁদের নাম তালিকায় থাকবে না, তাঁদের ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে (এফটি) আবেদন জানাতে হবে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নাগরিকত্ব প্রমাণে সরকার তাঁদের প্রত্যেককে সব রকমের সহায়তা দেবে।

একই রকম আবেদন জানিয়েছে অসম রাজ্য পুলিশও। বলেছে, এনআরসিতে নাম না ওঠার মানে বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত হওয়া নয়। যাঁদের নাম উঠবে না, তাঁরা এফটিতে আবেদনের জন্য ১২০ দিন সময় পাবেন। এই সময়সীমা আগে ছিল ৬০ দিন। সরকার প্রত্যেককে আইনি সহায়তা দেবে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে, অতিরিক্ত আরও এক হাজার এফটি রাজ্যে খোলা হবে। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ট্রাইব্যুনালে ব্যর্থ হওয়ার অর্থও বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত হওয়া নয়। ব্যর্থ নাগরিকেরা প্রথমে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হতে পারবেন, তারপর সুপ্রিম কোর্টের। আইনি প্রক্রিয়া শেষ না হলে কাউকেই ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠানো হবে না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only