শনিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৯

দশ কাউন্সিলর ফের তৃণমূলে, নৈহাটি পুরসভা আবার ঘাসফুলের দখলে

 কাঁচরাপাড়া– হালিশহর– বনগাঁ– হরিণঘাটার পর এবার নৈহাটি। বিজেপির কাছ থেকে পুরসভা পুনর্দখল প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখছে তৃণমূল। বিজেপিতে চলে যাওয়া নৈহাটি পুরসভার ১০ জন কাউন্সিলর আবার শনিবার তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে এলেন। এদিন তৃণমূল ভবনে রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী তথা কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের উপস্থিতিতে তাঁরা আবার ঘাসফুলের পতাকা হাতে তুলে নেন। এর ফলে নৈহাটি পুরসভা আবার তাঁদের দখলে চলে এলো বলে জানান ফিরহাদ হাকিম। গাড়ুলিয়া পুরসভার দু’জন কাউন্সিলরও এদিন তৃণমূলের ফিরে আসেন। শুধু কাউন্সিলররাই নন– এদিন বিজেপির যুব নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী ও সিপিএমের যুব নেতা প্রাঞ্জল গুহ নিয়োগীও তৃণমূলে যোগদান করেন।
এদিন দলে ফেরা কাউন্সিলরদের পাশে নিয়ে সাংবাদিক বৈঠকে ফিরহাদ হাকিম বলেন– লোকসভা ভোটের পর আমাদের কাউন্সিলরদের ভয় দেখিয়ে ভুল বুঝিয়ে বিজেপিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু সকলেই তাঁদের ভুল বুঝতে পেরেছেন। বিজেপিতে গিয়ে তাঁরা বাংলার সংস্কূতির সঙ্গে খাপ খাওয়াতে পারছিলেন না। তাঁরা বুঝেছেন তৃণমূলই তাঁদের আসল পরিবার। তাই তাঁরা আবার ফিরে এসেছেন। এবার একসঙ্গে আমরা দুর্গাপুজো করব। অঞ্জলি দেব।’
প্রসঙ্গত ২০১৫ সালের পুরভোটে নৈহাটি ছিল বিরোধী শূন্য। ৩১ টি ওয়ার্ড ছিল তৃণমূলের দখলে। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের পর গত ২৯ মে নৈহাটি পুরসভার ১৮ জন কাউন্সিলর দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন। এর ফলে ওই পুরসভায় সংখ্যা গরিষ্ঠতা হারায় তৃণমূল। এর পর অবশ্য নৈহাটি পুরসভায় প্রশাসক বসিয়ে দেয় রাজ্য সরকার। এদিন সেই ১৮ জনের মধ্যে ১০ জন আবার িফরে আসায় বর্তমানে তৃণমূলের কাউন্সিলর সংখ্যা দাঁড়াল ২৩। পুরবোর্ড আবার দখলে চলে আসল। বাকি আটজন কাউন্সিলরও ফিরে আসবেন বলে জানান ফিরহাদ হাকিম।’ উত্তর ২৪ পরগণা জেলার তৃণমূল সভাপতি তথা রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন– পুজোর পর ভাটপাড়া ও গাডYলিয়া পুরসভাও দখল করব।’ এই যোগদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা মহিলা তৃণমূল সভানেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও নৈহাটির তৃণমূল বিধায়ক পার্থ ভৌমিক।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only