শুক্রবার, ৯ আগস্ট, ২০১৯

উষ্ণায়ন মোকাবিলায় শাকাহারি খাবার খাওয়ার পরামর্শ রাষ্ট্রসংঘের বিজ্ঞানীদের


আপনি কি আমিষ খাবার পছন্দ করেন? মাছ, মাংস, ডিম ছাড়া আপনার মুখে কিছুই রচে না। কিন্তু জাননে কি বর্তমানে বেশিরভাগ চিকিৎসকের পরামর্শ, শাকাহারি খাবার এখন আপনাকে সুস্থ-সবল রাখতে সাহায্য করবে। এটা স্থানী চিকিৎসকরাই নন, রাষ্ট্রসংঘের বিজ্ঞানীরাও সম্প্রতি একই কথা বলেছেন। কিন্তু কেন দিচ্ছে এমন পরামর্শ?

বিজ্ঞানীরা বলছেন, বিশ্ব উষ্ণায়ন মানুষের শরীরের নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। আকস্মীক তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে মানুষ অসহনীয় হয়ে উঠছে। তাই পরিস্থিতি শারীরিকভাবে সহনীয় করে তুলতে একমাত্র উপায় শাকাহারি খাবার।

সম্প্রতি রাষ্ট্রসংঘের অধিনস্থ সংস্থা 'ইন্টারগর্ভমেন্টাল প্যানেল অন ক্লাইমেট চেঞ্জ (আইপিসিসি) জেনেভায় একটি বৈঠক করে। সেখানে বিজ্ঞানীরা জানান, বিশ্ব উষ্ণায়ন সহনীয় করতে এখন প্রয়োজন খাদ্য উৎপাদন ও ভূমি ব্যবস্থাপনায় নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করা। সেখানে রাষ্ট্রসংঘের বিজ্ঞানীরা একটি রিপোর্ট প্রকাশিত করেন। সেখানে বলা হয়েছে, পশ্চিমা বিশ্বের মাংসের উচ্চ মজুত ও দুগ্ধজাত পণ্য উৎপাদন বিশ্ব উষ্ণতাকে বাড়াচ্ছে। তারা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় মাংস ও দুধের পরিবর্তনে উদ্ভিদ ও শাক-সবজির ওপর নির্ভরশীল হতে বলেছেন।

বৈঠকে আইপিসিসি বলেন, পৃথিবীতে থাকা বরফ-মুক্ত ভূমির ৭২ শতাংশই খাদ্য ও বস্ত্র উৎপাদন এবং ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার প্রয়োজনে ব্যবহার করে বিনষ্ট করছে মানুষ।পাশাপাশি কৃষি শিল্প ও ভূমির অন্যান্য ব্যবহারের জন্য এক-চতুর্থাংশ গ্রিন হাউস গ্যাস নিঃসরণ হচ্ছে।

গবাদি পশু ও চাল থেকে নিসৃত হচ্ছে ক্ষতিকর গ্রিণ হাউস গ্যাস মিথেন। দিনের পর দিন বনাঞ্চল কমে আসার ফলে কার্বন নিঃসরণের পরিমাণও বাড়ছে।এক শতাব্দী আগে বিশ্ব জনসংখ্যা ছিল ১৯০ কোটি। কিন্তু তা বেড়ে এখন ৭৭০ কোটিতে পৌঁছেছে। ফলে বাড়ছে ভূমি ক্ষয় ও কমছে জমির উর্বরতা শক্তি।
পূর্বের চেয়ে খুব পরিমিত ও দক্ষভাবে ভূমি ব্যবহার করতে হবে। ফেরাতে হবে পশু-পাখি জন্য বাসযোগ্য বনাঞ্চল।মাংস মজুতের পরিমাণ কমিয়ে মিথেন গ্যাস হ্রাস করতে হবে। সেই সঙ্গে রোধ করতে হবে খাদ্য অপচয়। তাই শাকাহারি খাদ্যাভ্যাসই বিষয়টির ওপর আমূল পরিবর্তন আনতে পারে বলে আশাবাদী বিজ্ঞানীরা। তারা বলছে ডাল, সবজি, ফলমূল ও বাদামের মতো খাদ্য গ্রিন হাউস গ্যাস নিঃসরণে কমিয়ে আনতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only