মঙ্গলবার, ৬ আগস্ট, ২০১৯

হিরোশিমার ভয়াবহ পরমাণু বোমা হামলার ৭৪তম বার্ষিকী


দিনটা ছিল ৬ আগস্ট। মার্কিন ভয়াবহ পরমাণু বোমা হামলায় পুড়ে ভস্ম হয়ে গিয়ে ছিল জাপানের হিরোশিমা। এবছর সেই বোমা হামলার ৭৪তম বার্ষিকী হয়ে গেল মঙ্গলবার। ১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট জাপানের হিরোশিমা শহরে পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম পারমাণবিক বোমা হামলা চালায় আমেরিকা।
এ দিনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হ্যারি ট্রুমানের নিদের্শে হিরোশিমায় ফেলা হয় লিটল বয় নামের অ্যাটম বোমা। এতে মারা যান অন্তত এক লাখ চল্লিশ হাজার মানুষ।মঙ্গলবার হিরোশিমা দিবসে নিহতদের স্মরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। নিহতদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পালন করা হয় এক মিনিটের নীরবতা। ভয়াবহ দুই পারমাণবিক হামলার শিকার জাপান সবসময় পরমাণু মুক্ত নীতি মেনে চলবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী আবে।
পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পরমাণু অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণে কাজ করারও অঙ্গীকার করেন তিনি। হিরোশিমার ৩ দিন পর নয়ই আগস্ট নাগাসাকিতে ফেলা হয় দ্বিতীয় পারমাণবিক বোমা ফ্যাটম্যান। এতে নিহত হয় কমপক্ষে সত্তর হাজার মানুষ। তারপরও থেমে নেই পরমাণু অস্ত্র তৈরির প্রতিযোগিতা। বিভিন্ন গবেষণার তথ্য বলছে অন্তত ৯টি দেশের কাছে রয়েছে ৯ হাজার পরমাণু বোমা। কঠোর গোপনীয়তায় পরমাণু অস্ত্রের ভান্ডার সমৃদ্ধ করা হচ্ছে। চলছে আরো বিধ্বংসী বোমা তৈরির পরিকল্পনা। যদিও যুদ্ধ নয় শান্তির বার্তা প্রচারেই অগ্রগামী বিশ্বের এসব ক্ষমতাধর রাষ্ট্রনায়করা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only