শনিবার, ৩ আগস্ট, ২০১৯

কাশ্মিরে আতঙ্কে, শহর ছাড়ছেন শিক্ষার্থীরা

সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় ভয়-আতঙ্কে ত্রস্ত জম্মু ও কাশ্মির উপত্যকা। সন্ত্রাস হামলার আশঙ্কা প্রকাশ করে শুক্রবারই কার্যত নজিরবিহীনভাবে হিন্দু তীর্থযাত্রীদের অমরনাথ যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। শুধু অমরনাথ যাত্রাই নয়, কাশ্মিরে মাছিল মাতা যাত্রাও স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক প্রশাসন। অবিলম্বে সব পর্যটককে কাশ্মীর ছাড়তে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভয়-আতঙ্কে ত্রস্ত উপত্যকাবাসী। সরকারি নির্দেশিকার পরই ভূ-স্বর্গ ছাড়তে শুরু করেছেন পর্যটকরা।  এক সরকারি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, উপত্যকায় প্রায় ১১ হাজার পর্যটক রয়েছেন। যাদের মধ্যে ২০০ জনেরও বেশি বিদেশি পর্যটক রয়েছেন।

কাশ্মিরে সন্ত্রাস হামলার আশঙ্কা প্রসঙ্গে অতিরিক্ত ডিজিপি মুনির খান বলেছেন, তীর্থযাত্রাকে টার্গেট করে বড়সড় হামলা হতে পারে বলে আমাদের কাছে খবর রয়েছে। পর্যটকদের টার্গেট করা হতে পারে। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
এদিকে, সরকারি নির্দেশিকার পরই কাশ্মিরজুড়ে আতঙ্ক গ্রাস করেছে। পরিস্থিতি বেগতিক হওয়ার আশঙ্কায় পেট্রোল পাম্প, মুদির দোকান থেকে এটিএম, সর্বত্রই মানুষের ভিড়। বিমান বাতিলের ভাড়া মওকুব করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিমান সংস্থাগুলো।এনআইটি ছেড়ে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।
গত ২৫ জুলাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে জম্মু-কাশ্মীরে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে ১০০ কোম্পানি বাহিনী মোতায়েন করা হয়। ২৮ জুলাই রেলের ডিভিশনাল সিকিউরিটি কমিশনারের পক্ষ থেকে আগামী ৪ মাসের জন্য রেশন মজুত রাখতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়। একইসঙ্গে তাদের পরিবারের সদস্যদের কাশ্মিরে না আনার পরামর্শ দেয়া হয়। প্রশাসনের এই তৎপরতা দেখে জোর জল্পনা শুরু হয়। ৩৫ এ ধারা খারিজ হতে পারে বলে জোর জল্পনা চলে রাজনৈতিক মহলে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only