বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯

ভাতারে গ্রেফতার ৮ বিজেপি কর্মীসমর্থক

পারিজাত মোল্লা, মঙ্গলকোট ; পঞ্চায়েতের কাজ কর্মের বিরুদ্ধে ওঠা আরটিআই নোটিসের সঠিক উত্তর না দিতে পারায় পঞ্চায়েতের ভিতরে ঢুকে পঞ্চায়েতের কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ভাতারের বড়বেলুন ২নং গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘটনা। পঞ্চায়েত কর্মীদের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার হয় আট বিজেপি সমর্থক। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার দুপুর নাগাদ বেশ কিছু সংখ্যক বিজেপি সমর্থক একমাস আগে পঞ্চায়েতের কাজ কর্মের বিরুদ্ধে আরটিআই এর জবাব নিতে পঞ্চায়েতে আসে। পঞ্চায়েত কর্মী দের সাথে বাদানুবাদ চলাকালীন সময়ে বেশ কিছু বিজেপি সমর্থক পঞ্চায়েতের এক্সিকিউটিভ অ্যাসিস্ট্যান্ট বিজয় সামুই এর উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ। পঞ্চায়েত চত্বরে তালা লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগও ওঠে ওই বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে। যদিও কিছুক্ষণ পরেই সেই তালা খুলে দেয়া হয়। এই ঘটনার ঘটনায় পঞ্চায়েতের সেক্রেটারি সুজিত দাস ভাতার থানায় লিখিত অভিযোগ জানান। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার পুলিশ আটজন বিজেপি সমর্থক কে গ্রেফতার করে। ধৃতরা হলেন অরবিন্দ ঘোষ, বুদ্ধদেব বৈরাগ্য, সনত কুমার ঘোষ, অমিও দে, অশোক দাস, বাসুদেব দাস, সনাতন দাস এবং লিচু দাসধৃতরা সকলেই  বড়বেলুন দুই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার নাসিগ্রাম ও মাধবপুর গ্রামের বাসিন্দা। তৃণমূল বিধায়ক সুভাষ মন্ডল ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। তিনি জানান -পঞ্চায়েতের উন্নয়নকে স্তব্ধ করতে এটা বিজেপির চক্রান্ত ।অন্যদিকে অঞ্চলের স্থানীয় বিজেপি নেতা দাবি একমাস আগে থেকে আরটিআই এর উত্তর চাইতেই বিজেপি কর্মীরা পঞ্চায়েতে এসেছিল ,কোন মারধরের ঘটনার সাথে তারা যুক্ত নয়। পরিকল্পনামাফিক তাদের কর্মীদের ফাঁসানো হচ্ছে বলে তার দাবি। বৃহস্পতিবার বর্ধমান আদালতে পেশ করে ভাতার থানার পুলিশ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only