বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯

নাবালিকা ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন! চার বছরের কারাবাস অঙ্কন শিক্ষকের

দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট, ২২অগাস্ট: এক নাবালিকা ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে আঁকা শিক্ষকের চার বছরের কারাবাসের সাজা ঘোষণা করলো রামপুরহাট পকসো আদালত।

জানা গেছে, রামপুরহাট থানার বামনী গ্রাম তথা রামপুরহাট পুরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা বাদশা মজুমদার একজন প্রতিষ্ঠিত আঁকার শিক্ষক। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তাঁর ক্লাসের নির্ধারিত সময়ের বাইরে একা ওই ছাত্রীকে আঁকা শেখানোর জন্য ডেকে পাঠান। এক বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণীতে  পাঠরতা ছিল ওই ছাত্রী। সামনে পরীক্ষার কারণে তাকে আলাদা ভাবে আঁকা শেখানোর জন্য ডেকে পাঠানো হয় বলে দাবি  ওঠে। অভিযোগ, সেই অছিলায় তাকে যৌন নির্যাতন করা হয়। এরপর ছাত্রীটি সমস্ত কিছু তাঁর বাবা মাকে জানায়। সেই দিন অর্থাৎ ২০১৮ সালের ২৯ জুন রামপুরহাট থানায় অভিযোগ জানানো হয় নিগৃহীতার তরফে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪ পকসো আইন ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। যার কেস নং - ২৯৮/১৮ তাং ২৯.০৬.২০১৮।   সাজা প্রাপ্ত আসামী জেল হেফাজতে থাকা কালীন এই মামলার শুনানি চলে।  বৃহস্পতিবার রামপুরহাট পকসো আদালত এই মামলার সাজা ঘোষণা করে। উল্লেখ্য, আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ গঠিত রামপুরহাট পকসো আদালতে এই সাজা ঘোষণাটি প্রথম রায়। এদিন রায়ের পাশাপাশি, বিষয়টি রুল ৭ কমপেনশেসনের  জন্য পাঠানো হয়।

সরকারি আইনজীবী প্রবাল বন্দোপাধ্যায় বলেন, এদিন রামপুরহাট পকসো আদালতে আসামীর সাজা ঘোষণা করেন বিচারক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য। পকসো ধারায় আসামি দোষী সাব্যস্ত হয় এবং তার চার বছর সশ্রম কারাদণ্ডের ঘোষণা হয়। পাশাপাশি, দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সেই অর্থ নিগৃহীতাকে দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয় আদালতের তরফে। অনাদায়ে আসামীকে আরও অতিরিক্ত ৬ মাসের কারাবাস ভোগ করতে হবে।

আরও পড়ুন- মমতাময়ী মমতা!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only