বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৯

পণের জন্য বধূ হত্যা! এলাকায় চাঞ্চল্য


দেবশ্রী মজুমদার, নলহাটি, ০৮ অগাস্টঃ  পণের জন্য এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল মৃতের শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে।  পুলিশ মৃতের শ্বশুরকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে নলহাটি থানার শীতল গ্রামে।
জানা গেছে, আট বছর আগে নলহাটি থানার মেহেগ্রামের বাসিন্দা মেনকা লেটের (২৫) সাথে বিয়ে হয় শীতল গ্রামের বাসিন্দা বিশ্বজিৎ লেটের। বিশ্বজিৎ পেশায় দিনমজুর। তাদের দুই ছেলে। তার মধ্যে ছোট ছেলে কথা বলতে পারে না। তার দাদা নিরঞ্জন লেট জনান,  বৃহস্পতিবার সকালে আমার ভাই নিমাই লেটের কাছে ফোন আসে যে মেনকা মারা গেছে। আমরা সবাই মিলে শীতল গ্রামে যায়। সেখানে দেখি মেনকাকে কাপড় দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাড়িতে শ্বশুর ছাড়া বোনের স্বামী ও শাশুড়ি পলাতক।  জানা গেছে, মৃতার বাবা নিত্যগোপাল লেট নলহাটি থানায় অভিযোগ দায়ের করে। তার ভিত্তিতে পুলিশ শ্বশুরকে গ্রেফতার করেছে। ডলি বাগদি জানান, মৃতা তাঁর ভাসুরের মেয়ে। পণের দাবিতে তাঁর স্বামী বিশ্বজিৎ লেট  ও শাশুড়ি অচলা লেট  প্রায় অত্যাচার করত।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only