বুধবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৯

কাশ্মীরে যাবেন সীতারাম ইয়েচুরি ও আইন পড়ুয়া, অনুমতি শীর্ষ কোর্টের

যে আইন পড়ুয়া তার বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে কাশ্মীরে যাওয়ার অনুমতি চেয়েছিল এবং বাম নেতা সীতারাম ইয়েচুরিকে  জম্মু ও কাশ্মীর সফরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া উচিত বলেই সুপ্রিম কোর্ট বুধবার রায় দিয়েছে। ৩৭০ ধারা বা এই রাজ্যের বিশেষ মর্যাদার সমাপ্তির বিরুদ্ধে আবেদনের শুনানি করে শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট বলছে, “আবেদনকারী শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আলেম সাইদকে জম্মু ও কাশ্মীর ভ্রমণ করার এবং অনন্তনাগে গিয়ে বাবা মায়ের সঙ্গে দেখা করতে দিতে হবে এবং ফিরে আসার পরে একটি হলফনামা দাখিল করারও অনুমতি দেওয়া হবে।” 

শীর্ষ আদালত বুধবার রাজ্যকে ওই পড়ুয়ার সফরকে সহজতর করার এবং তাকে পর্যাপ্ত সুরক্ষা দেওয়ার আদেশও দিয়েছে। দলীয় সহকর্মী মোহাম্মদ ইউসুফ তারিগামীর সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতির জন্য সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরির আবেদনের বিষয়ে, প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, “আমরা আপনাকে দেখা করার অনুমতি দেব। আপনি কেবল আপনার বন্ধুর সঙ্গেই দেখা করতে যাচ্ছেন তো? এই দেশের এক নাগরিক তাঁর বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে চায়। এতে অসুবিধা কোথায়?” 

কেন্দ্র সরকার যুক্তি দিয়েছিল যে, সীতারাম ইয়েচুরির এই যাত্রা আসলে একটি রাজনৈতিক সফর বলেই মনে হচ্ছে এবং তা কাশ্মীরের পরিস্থিতির উপর বিরূপ প্রভাব ফেলবে। সরকার জানিয়েছিল, জম্মু ও কাশ্মীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক এবং ইয়েচুরির সফর ওই স্বাভাবিক পরিস্থিতিকে বিপন্ন করবে। সীতারাম ইয়েচুরি জানান, তাঁর ওই বন্ধুর স্বাস্থ্য ভাল নেই, তাই নিজের সহকর্মীর সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করেছিলেন তিনি। সরকার জানায়, “ইউসুফ তারিগামি সুস্থ ও স্বাভাবিকই রয়েছেন এবং তাঁর শারীরিক পরীক্ষা করা হয় প্রতিদিনই। তিনি জেড ক্যাটাগরির সুরক্ষার অধীনে রয়েছেন।” 


প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, “তিনি যদি এই দেশের নাগরিক হন তবে তিনি যাবেন। সীতারাম ইয়েচুরি যদি অন্য কোনও বিষয়ে লিপ্ত হন তবে তা সুপ্রিম কোর্টের আদেশের লঙ্ঘন হিসাবেই গণ্য হবে।" আদালত ইয়েচুরিকে তাঁর ফেরার সময় তারিগামির অবস্থার বিষয়ে হলফনামাও জমা দিতে বলেছে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only