বৃহস্পতিবার, ২৯ আগস্ট, ২০১৯

সৌদিতে নামাযের সময়ও খোলা থাকবে দোকান-বাজার

 সৌদি আরব সরকার নতুন এক আইন পাস করেছে। যার বলে এবার থেকে নামাযের সময়ে দোকান-বাজার– শপিং মল– হোটেল-রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি সব ধরনের বিকিকিনি সেন্টার খোলা রাখা যাবে। অর্থাৎ এই আইনের মাধ্যমে আগের নিয়ম শিথিল করে দেওয়া হল। আগে বলবৎ থাকা আইনে নামাযের সময় দোকান-বাজার খোলা রাখলে মালিকের ৭২ ঘণ্টা জেল হত। এবার থেকে সেই পাবন্দি উঠে গেল। সূত্রের খবর– সৌদি বাদশাহের পুত্র ক্রাউন প্রিন্স বিন সালমানের ইচ্ছাতেই এই নতুন আইন লাগু হল। গতমাসেই বিলটি শুরা কাউন্সিলে পেশ করা হয়। তবে বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ায় এ ব্যাপারে একমাস সময় নিয়ে বিলটি পাস হল। এই বিলে বলা হয়েছে– ২৪ ঘণ্টাই খোলা রাখা যাবে দোকান-পাঠ। তবে নামাযের সময় খোলা রাখতে হলে সংশ্লিষ্ট দোকানের মালিককে অতিরিক্ত কর দিতে হবে। যার পরিমাণ ১ লক্ষ সৌদি রিয়াল বা ২৭ হাজার মার্কিন ডলার। তবে দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাযের ক্ষেত্রেই এই বিধি কার্যকর হবে কি না– সে বিষয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। সরকারের তরফেও এই বিতর্কিত ব্যাপারটি নিয়ে খোলসা করা হয়নি। উল্লেখ্য– আযান হলে ব্যবসাপত্র বন্ধ করে দ্রুত মসজিদ অভিমুখে রওনা দেওয়ার জন্য তাগিদ দেওয়া হয়েছে পবিত্র কুরআনের সূরা আল-জুম্মায়। তবে এটা কেবল জুম্মার নামাযের জন্য প্রযোজ্য।
এদিকে জানা গিয়েছে– সৌদি আরবে সুদীর্ঘকাল ধরে চালু থাকা এই আইনটি তুলে দিয়ে মূলত শিল্পবান্ধব বার্তা দিতে চাইছে সরকার। এর ফলে সৌদিতে বিনিয়োগ ও লগ্নি বাড়বে এবং শিল্পায়নে জোয়ার আসবে বলে আশাবাদী ক্রাউন প্রিন্স এবং তাঁর আর্থিক ও বাণিজ্যিক উপদেষ্টা পর্ষদ। তাই তাঁদের যুক্তি হল– সর্বক্ষণ দোকান-বাজার খোলা থাকলে বেচাকেনা বাড়বে। খরিদ্দারকেও জিনিসপত্র কেনার জন্য বেশি সময় নষ্ট করতে হবে না। কারণ– নামাযের জন্য দোকান-পাঠ বন্ধ থাকলে ক্রেতাদেরকে দোকান পুনরায় খোলার জন্য অপেক্ষা করতে হয়। এবার থেকে সেই সময়টা সাশ্রয় হবে। সর্বোপরি ব্যবসায়ী বা দোকানদারদের বেচাকেনা ও লাভের অঙ্ক বাড়বে।  

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only