রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ফের হুতিদের নিশানায় আরামকো

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর মালিকানাধীন দুটি কেন্দ্র ড্রোন হামলার শিকার হয়েছে। প্রথম হামলাটি চালানো হয় আবকাইক-এ অবস্থিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্রে। অপরটি হয়েছে– পশ্চিমাঞ্চলে খুরাইস তেল ক্ষেত্রে। দুই জায়গায় বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। তবে সৌদির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়, যে জায়গা দুটির আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।শনিবার বিকেলে হামলার দায় স্বীকার করেছে হুতি বিদ্রোহীরা।এর আগেই সৌদির অর্থনীতিকে ধাক্কা দিতে সৌদি তেল কারখানাগুলিতে ড্রোন হামলা চালিয়েছিল হুতি বিদ্রোহীরা।

২০১৫ সালের মার্চ থেকে ইয়েমেনে হুতিদের সঙ্গে লড়াই চালাচ্ছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। ওই লড়াই শুরু পর থেকে সৌদি আরবে বেশ কয়েকবার হামলা চালানোর কথা স্বীকার করেছে হুথি বিদ্রোহীরা। সৌদির সরকারি তথ্য অনুযায়ী– শনিবার ভোর চারটের সময় আবকাইক ও খুরাইসে তেল কেন্দ্রেগুলিতে ড্রোন হামলা চালানো হয়। তাতে  দুটি জায়গায় অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণ ঘটে। বহু দূর থেকে আগুনের কুণ্ডলী বেরিয়ে আসতে দেখা যায়। ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়ে ছিল গোটা এলাকা। সেই সময় গোলাগুলিরও আওয়াজ পাওয়া গিয়েছে। আরামকোর নিরাপত্তাকর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যান। দীর্ঘক্ষণ প্রচেষ্টা চালানোর পর আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে পারেন তারা। তবে এতে কী ধরণে ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি সৌদি আরব। হামলার পর পর হুতিদের দিকে আঙুল উঠলেও সেই সময় কোনও ব্যক্ত প্রকাশ করেনি এই বিদ্রোহী দল। কিন্তু শনিবার বিকেলে অবশেষে হামলার দায় স্বীকার করে। তারা জানিয়েছে– এই দুই কেন্দ্রকে লক্ষ্য করে মোট ১০টি ড্রোন হামলা চালানো হয়ে ছিল। আগামীতে আরও সৌদিতে বড় ধরণের হামলা চালানো হবে।
সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দাহারান থেকে ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে আবকাইক তেল প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রটি অবস্থিত। দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল উত্তোলন কেন্দ্র খুরাইস ওই স্থান থেকে আরও ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থিত। ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে আবকাইক তেল প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রটিতে হামলার চেষ্টা চালিয়ে ছিল আল-কায়দা। সেই সময় এক আত্মঘাতী হামলাকারী তেল কেন্দ্রটির অন্দরে ঢুকতে চেষ্টা করে। কিন্তু তা ব্যর্থ হয়ে যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only