বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুব খারাপ, কিছুই ঠিক নেই : গুলাম নবী আজাদ

পুবের কলম ডিজিটাল ওয়েব ডেস্ক :  কংগ্রেসের সিনিয়র নেতা ও রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা গুলাম নবী আজাদ বলেছেন, কাশ্মীর উপত্যকার পরিস্থিতি খুব খারাপ। ছয় দিনের জম্মু-কাশ্মীর সফরে গিয়ে গতকাল (মঙ্গলবার) তিনি সাংবাদিকদের সামনে ওই মন্তব্য করেন।

গত ৫ আগস্ট ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সম্বলিত ৩৭০ ধারা বাতিল করার পরে সেখানে চলমান অবরুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যে ছয় দিনের সফরে এই প্রথম তিনি দিল্লি থেকে রাজ্য সফরে এসেছেন।

মঙ্গলবার জম্মু পৌঁছে আজাদ বলেন, গণমাধ্যমকে এ বিষয়ে আমার কিছু বলার নেই। আমি চার দিন কাশ্মীরে ছিলাম এবং জম্মুতে আরও দু'দিন থাকার জন্য এখানে এসেছি। কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুব খারাপ। এই চার দিনের মধ্যে যেখানে যেখানে যেতে চেয়েছিলাম তার সব জায়গায় যেতে দেয়া হয়নি।

তিনি কাশ্মীর পরিস্থিতি সম্পর্কে বেশি কিছু বলতে অস্বীকার করে বলেন, উপত্যকায় তিনি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে গিয়েছিলেন এবং দিল্লি ফিরে গিয়ে আদালতে তাঁর সফরের বিশদ প্রতিবেদন জমা দেবেন। ছয় দিনের সফর শেষ হওয়ার পরে যা বলার তখন বলব।
গুলাম নবী আজাদ বলেন, সুপ্রিম কোর্ট তাকে জম্মু-কাশ্মীরের চারটি জেলা সফরের অনুমতি দিয়েছে। তার ভিত্তিতে তিনি শ্রীনগর, বারামুল্লা ও অনন্তনাগ সফর করে জম্মু এসেছেন। জম্মুতে তিনি দু'দিন থাকবেন। কাশ্মীর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়া প্রসঙ্গে আজাদ বলেন, ‘কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুব খারাপ। সেখানে কিছুই ঠিক নেই।’

গত রোববার তিনি অনন্তনাগ সফরে গিয়েছিলেন। সোমবার, কঠোর নিরাপত্তায় তিনি উত্তর কাশ্মীরের বারামুল্লা জেলায় পৌঁছে জেলা সদরের বিভিন্ন অঞ্চল পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি ফলের বাজার সম্পর্কে খোঁজখবর নেন।

জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রীকে গুলাম নবী আজাদকে বারামুল্লা ফল উৎপাদন সমিতি ও আপেল ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা বর্তমান পরিস্থিতিতে তাঁরা যেসব সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন সে সম্পর্কে অবহিত করেন। তাঁদের অভিযোগ, জাতীয় সমবায় বিপণন ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া লিমিটেড (ন্যাফেড) দ্বারা নির্ধারিত সহায়ক মূল্য যুক্তিসঙ্গত নয়। ফল উৎপাদন সমিতির নেতা মুহাম্মাদ ইউসুফ দার বলেন, এখানে সরকার যে আপেলের পেটি সাতশ’ টাকায় কিনছে, তা দিল্লির বাজারে খুব সহজেই আড়াই হাজার টাকায় বিক্রি করা যায়। রাজ্য সরকার ইন্টারনেট ও মোবাইল ফোনের পরিসেবা দ্রুত বহাল করলে সহজে নিজেদের পণ্য রাজ্যের বাইরে বিক্রি করতে পারবেন। 

আজাদের সঙ্গে এদিন, ক্যান্সার রোগী ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের এক প্রতিনিধি দলের পাশাপাশি বারামুল্লা সিভিল সোসাইটির সদস্যরা সাক্ষাৎ করেন। তাঁরা স্বাস্থ্যসেবা উন্নত করতে, মোবাইল ও  ইন্টারনেট পরিসেবা পুনরুদ্ধার এবং জনগণের মধ্যে সুরক্ষা এবং আস্থার পরিবেশ তৈরিতে গৃহীত ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করেন। এসময় তাঁরা প্রশাসনিক বিধিনিষেধের কারণে ক্যান্সার রোগীরা যে সমস্যায় পড়ছেন তা দ্রুত দূর করার ওপর জোর দেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only