মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বিজেপি নেতা অতনু চট্টোপাধ্যায়ের জেল হেফাজত

জেল হেফাজতে পাঠানো হল জেলা বিজেপি নেতা অতনু চট্টোপাধ্যায়কে। ৮ অক্টোবর পর্যন্ত তাকে জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। তবে অন্য একটি মামলায় ফের তাকে ২৬ সেপ্টেম্বর আদালতে তোলা হবে বলে আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৬ সেপ্টেম্বর রাত্রে মল্লারপুর থানার কামরাঘাটের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক অতনু চট্টোপাধ্যায়কে। বিজেপির অভিযোগ, নানুরের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে বিজেপি কর্মী স্বরুপ গড়াইয়ের খুনের প্রতিবাদে সিউরিতে জেলা পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে অবস্থানে বসেছিল দল। সেই মঞ্চে দাঁড়িয়ে পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন অতনু চট্টোপাধ্যায় এবং ধ্রুব সাহা। এরপরেই পুলিশ দুই নেতাকেই গ্রেফতার করে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা দেয়। সাতদিন পুলিশ হেফাজতে থাকার পর মঙ্গলবার অতনুকে ফের আদালতে তোলা হয়। এদিন মল্লারপুর বিস্ফোরণ কাণ্ডে জামিন খারিজ করে তাকে জেলা হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন বিচারক সিদ্ধার্থ শঙ্কর রায় চৌধুরী। অন্যদিকে ময়ূরেশ্বরে সাম্প্রদায়িক উস্কানি মামলায় জামিন খারিজ করা হয়েছে। তবে এদিন ময়ূরেশ্বরের মামলায় তদন্তকারি অফিসার হাজিরা না দেওয়ায় ফের ২৬ সেপ্টেম্বর ওই মামলার শুনানি হবে বলে জানান অভিযুক্ত পক্ষের আইনজীবী অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “ময়ূরেশ্বর থানার মামলায় পুলিশ হেফাজতে চেয়েছিল। কিন্তু তদন্তকারি অফিসার না হাজির হওয়ায় ফের ২৬ সেপ্টেম্বর শুনানি হবে”। অন্যদিকে পাঁড়ুইয়ের বিজেপি নেতা সামাদ শেখকেও এদিন রামপুরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয়। তাকে ষাটপলসায় তৃণমূল পার্টি অফিস ভাঙচুরের অভিযোগে আদালতে তোলা হয়। তাকেও ৮ অক্টোবর পর্যন্ত জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only